kalerkantho

ক্ষতিপূরণ পেলে মালিকানা ছাড়ার প্রস্তাব মুন সিনেমা মালিকপক্ষের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ আগস্ট, ২০১৯ ১৩:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্ষতিপূরণ পেলে মালিকানা ছাড়ার প্রস্তাব মুন সিনেমা মালিকপক্ষের

ফাইল ফটো

আলোচিত মুন সিনেমা হলের মালিকানা নিয়ে সরকারের সঙ্গে দ্বন্দ্ব অবসানে সমঝোতার প্রস্তাব দিয়েছে ইটালিয়ান মার্বেল কোম্পানি। তবে এজন্য সম্পত্তির মূল্য বাবদ প্রায় ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ পরিশোধের শর্ত চেয়েছে মালিকপক্ষ।

আগামী ২২ আগস্ট এই অঙ্গীকারনামা লিখিতভাবে দাখিল করার জন্য আজ রবিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

নতুন প্রস্তাবে বলা হয়েছে সম্পত্তির মূল্য বাবদ প্রায় ১০০ কোটি টাকা পাওয়ার পর মুন সিনেমা হল ও তাদের সম্পত্তির মালিকানা ও অধিকার মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের নামে বুঝিয়ে দেবে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। ইটালিয়ান মার্বেল কোম্পানির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি।

এর আগে গত ২৮ জুলাই মুন সিনেমা হলের সম্পত্তি মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের নামে রেজিস্ট্রেশন করতে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে এ নির্দেশ দেওয়া হয়। একইসঙ্গে মুন সিনেমা হলের মালিককে প্রায় ১০০ কোটি টাকা পরিশোধের জন্য ১৮ আগস্ট পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়।

মুন সিনেমা হলের মালিকানা নিয়ে মামলার পর সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনী বাতিল হয়েছিল। সেই সিনেমা হলের জমি এবং তার ওপর গড়ে তোলা বর্তমান স্থাপনার নির্ধারিত মূল্য পরিশোধের নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

২০১৮ সালের ১০ ডিসেম্বর এক আদেশে ৩০ জুনের মধ্যে টাকা পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। এ আদেশের পর সরকার মুন সিনেমা হলের মালিক মাকসুদুল আলমের নামে ৯৯ কোটি ২১ লাখ ৭৩ হাজার টাকার চেক ইস্যু করে তা আদালতে উপস্থাপন করে। এ সময় বাংলাদেশ ইটালিয়ান মার্বেল ওয়ার্কের আইনজীবী তৌফিক নেওয়াজ আপত্তি জানিয়ে বলেন, ব্যক্তির নামে নয়, চেক হতে হবে কম্পানির নামে। এরপর আদালত তা সংশোধন করে কম্পানির নামে করতে নির্দেশ দেন।

আপিল বিভাগ গত বছর ১৮ জানুয়ারি এক আদেশে ক্ষতিপূরণসহ ভবন ও জমির মূল্য বাবদ ৯৯ কোটি ২১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৪ টাকা ২৭ পয়সা পরিশোধ করতে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট ও এর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের প্রতি নির্দেশ দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা