kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

অভিন্ন নিরাপত্তাকাঠামোতে আনতে হবে সব কারখানা

সিপিডি-আইএলও কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর দেশের পোশাক কারখানাগুলোর কর্মপরিবেশ উন্নত হলেও অন্য খাতে এখনো তেমন কোনো অগ্রগতি নেই। ফলে দেশের শিল্প-কারখানায় নিরাপত্তাঝুঁকি বাড়ছে। এ অবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে সব কারখানা অভিন্ন নিরাপত্তাকাঠামোর আওতায় আনতে হবে। এ জন্য সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে বলে মনে করেন কর্মশালায় বক্তারা।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘বাংলাদেশের শিল্প খাতে নিরাপত্তা’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা। গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) ও আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। বিশেষ অতিথি ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহসান ইলাহী।

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, ‘রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বহির্বিশ্বে বাংলাদেশ সম্পর্কে যে ধারণা ছিল, সে ধারণা পাল্টে গেছে। বাংলাদেশ সম্পর্কে বহির্বিশ্বের মনোভাব এখন ইতিবাচক। তবে আমাদের সামনে কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এ চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করতে ছোট-বড় সব কারখানায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। ’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী বলেন, শিল্প স্থাপন করতে হলে নিরাপত্তার বিষয়টি অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। চাকরিদাতা, কর্মজীবীসহ সবাই একসঙ্গে কাজ করলে যেকোনো সমস্যার সমাধান সম্ভব। এখন পরিকল্পনা ছাড়া নতুন কোনো শিল্পের অনুমোদন দেওয়া হয় না। শ্রমসচিব মো. এহসান ইলাহী বলেন, প্রস্তাবিত শ্রম আইনে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক সব শিল্প খাতের শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের বিধান থাকছে। এ বিষয়ে দুটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরই মধ্যে কমিটি কাজ শুরু করেছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইএলওর কান্ট্রি ডিরেক্টর তমো পোতাইনেন। বক্তব্যে সিপিডির গবেষণা পরিচালক খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম।



সাতদিনের সেরা