kalerkantho

গ্রেপ্তারকৃত মা বললেন বাচ্চা দুধ খায়, সত্যতা জানতে ল্যাকটেশন টেস্ট!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ আগস্ট, ২০১৯ ১৯:০৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গ্রেপ্তারকৃত মা বললেন বাচ্চা দুধ খায়, সত্যতা জানতে ল্যাকটেশন টেস্ট!

গুয়াতেমালা থেকে বাধা পেরিয়ে মেক্সিকো সীমান্তে ঢুকে পড়া কয়েক হাজার মধ্য আমেরিকান অভিবাসন প্রত্যাশী যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে অবস্থান করছেন। এমন পরিস্থিতে যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্ত থেকে ৮ আগস্ট ৬৮০ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে গ্রেপ্তার করে যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট।

অভিযানের সময় দেশটির মিসিসিপি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় এক নারীকে। তিনি চার মাস বয়সী ছোট শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতেন। কিন্তু গ্রেপ্তারের পর থেকেই তার শিশুকে দুধ খাওয়াতে পারছেন না। যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন কর্মকর্তারা স্থানীয় সময় মঙ্গলবার এমনটাই জানান। পরে তারা জানান, ফেডারেল গ্র্যান্ড জুরি মারিয়া ডোমিংগো গার্সিয়াকে অন্য ব্যক্তির সামাজিক সুরক্ষা নম্বর ব্যবহারের অপরাধের জন্য অভিযুক্ত করেছে।

এ বিষয়ে ডোমিংগো গার্সিয়ার আইনজীবীর কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। কিন্তু ডোমিংগোর আইনজীবী এবং পরিবারের পক্ষ জানায়, তিনি তার শিশুকে বুকের দুধ খাওযাতে পারছেন না। তারা আরো জানান, মেয়ের কাছ থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার বেদনায় ভুগছেন তিনি।

প্রতিরাতে ঘুমিয়ে যাওয়ার আগেই ডোমিংগো গার্সিয়া শিশু সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতেন। আগস্টের ৭ তারিখে গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে তিনি আর দুধ খাওয়াতে পারছেন না। তার তিন বছর বয়সী ও ১১ বছর বয়সী দুই শিশু রয়েছে। এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডোমিংগো গার্সিয়ার আইনজীবী রে ইয়াবাররা মালদোনাদো।

এর আগে কর্তৃপক্ষ ডোমিংগোকে জিজ্ঞেসা করেছিল যে, তিনি শিশু সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়ান কিন। তিনি উত্তরে বলেছিলেন, না। এদিকে তার আইনজীবীর দাবি, তাকে কোনো সময়ই এই ধরনের কোনো প্রশ্ন করা হয়নি।

দেশটির স্থানীয় সময় মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্টের মুখপাত্র ব্রায়ান কক্স বলেন, ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা এ ব্যপারে কোনা তথ্য জানতেন না। এ বিষয়টি জানার পর এক জন নার্স ওই নারীকে পরীক্ষা করে দেখেন যে, তিনি আসলে বুকের দুধ খাওয়াতেন কিনা। পরে তিনি দৃঢ়ভাবে বলেন যে, তিনি দুধ খাওয়াতেন না। 

ডোমিংগো গার্সিয়ার আইনজীবী ইয়াবাররা মালদোনাদো জানান, ল্যাকটেশন টেস্ট কারার সময় ভুক্তভোগীর আইনজীবী বা তিনি নিজে উপস্থিত ছিলেন না। কিন্তু ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট বলছে, ল্যাকটেশন টেস্ট করা হয়ে গেছে! টেস্টের ফলাফল হাতে আসার আগেও তিনি জানতেন না যে এই ধরনের কোনো পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ইয়াবাররা মালদোনাদো বলেন, আমি আসলে জানি না কেন তাকে (ডোমিংগো গার্সিয়া) মুক্ত করা হচ্ছে না। টেস্ট করার সময় এটা (বুকের দুধ খাওয়ানো) যদি পরীক্ষায় না আসে তাহলে তার পেছনেও অনেক কারণ থাকতে পারে। তার মধ্যে হতে পারে ডোমিংগোকে ১২ দিন ধরে আটকে রাখা হয়েছে। তিনি একটি ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন।

কবে তিনি শিশু কন্যার সঙ্গে পুনরায় মিলিত হবেন এখনো তা এখনো স্পষ্ট নয়। দেশটির আদালতের নথি থেকে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রে থাকতে বা কাজ করতে ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ডোমিংগো গার্সিয়া মিসিসিপিতে অন্য কারো সামাজিক সুরক্ষা কার্ড ব্যবহার করেছিলেন। বলা হচ্ছে, তিনি অন্য কোনা ব্যক্তির সামাজিক সুরক্ষা নম্বরও ব্যবহার করেছিলেন। 

ব্রায়ান কক্স বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মার্শাল সার্ভিসের হাতে তাকে তুলে দেওয়া হবে। ফেডারেল বিচারের জন্য তাকে অপেক্ষা করতে হবে।

সূত্র: সিএনএন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা