kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

গুরুদাসপুরে তুচ্ছ ঘটনায় একই পরিবারের পাঁচজনকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুরুদাসপুরে তুচ্ছ ঘটনায় একই পরিবারের পাঁচজনকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

একই পরিবারের আহত ৫ সদস্য

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১২ সেপ্টেম্বর রতন সরদার ও প্রতিবেশী বাবলু শাহর পরিবারের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হয়। ঘটনার পাঁচদিন পর বাবলু শাহ লোকবল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে রতনসহ তার পরিবারের ৫ জনকে গুরুতরভাবে জখম করে। ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের বিলব্যাসপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গাছের আমড়া পারার তুচ্ছ ঘটনার জেরে এতবড় হামলায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন নেয় স্থানীয়রা। আহতরা হলেন- রতন সরদার (৪২) ও তার স্ত্রী মঞ্জুয়ারা বেগম (৩৭), দুই ছেলে মহরম (১৬) ও মুন্নাফ (২৪) এবং মুন্নাফের স্ত্রী বিউটি বেগম (২০)। আহত রতন সরদার গুরুদাসপুর থানায় বাদী হয়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে এজহার দাখিল করেছেন। আসামিরা হলেন- বাবলু শাহ (৪৫), সেলিম (২৩), আজিজুল (১৯), আশরাফ (৪৪), সাগর (২২), লাভলী (৩০), আতিয়া (১৯), আঞ্জুয়ারা (৪০), জান্নাতি বেগম (২০), ইসলাম প্রাং (২৫), রেবা বেগম (৩৭)।

এদিকে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. রবিউল করিম জানান, আহতরা প্রাণে বেঁচে গেলেও এখনো বিপদমুক্ত নয়। তাদের উন্নত চিকিৎসা দরকার।

এ ব্যাপারে বুধবার দুপুরে সরেজমিন ঘটনাস্থল গেলে আসামি পক্ষের কাউকে বাড়িতে না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া যায়নি। তবে স্থানীয় ইউপি সদস্য রাশিদুল ইসলামসহ অনেকেই জানান, রতনের পরিবারের সবাইকে হত্যার উদ্দেশ্যেই হামলা চালানো হয়। তারা বলেন, স্থানীয়রা এগিয়ে না এলে বড় অঘটন ঘটে যেতো। স্থানীয় মশিন্দা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

আহত গৃহবধূ বিউটি বেগম অভিযোগ করেন, তাকে শ্লীলতাহানী করে গায়ের গহনা ছিনতাই করেছে আসামি ইসলাম প্রাং। 

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাহারুল ইসলাম, অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত আসামিরা পলাতক রয়েছেন। তদন্তপূর্বক প্রকৃত দোষীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় নেয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা