kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

প্রতিবন্ধী মেয়েটি গণিতে পেয়েছিল ২, খাতা পুনর্মূল্যায়নে পেল ১০০!

অনলাইন ডেস্ক   

৮ আগস্ট, ২০২০ ১৫:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিবন্ধী মেয়েটি গণিতে পেয়েছিল ২, খাতা পুনর্মূল্যায়নে পেল ১০০!

শিক্ষা বোর্ডের চরম অবহেলা আর দায়িত্বহীনতায় দশম শ্রেণির পরীক্ষার ফল বিপর্যয় ঘটেছিল ভারতের হরিয়ানার সুপ্রিয়া নামের শারীরিক প্রতিবন্ধী এক শিক্ষার্থীর। প্রকাশিত ফলাফলে গণিত বিষয়ে সে পেয়েছিল মাত্র ২। তবে খাতা পুনর্মূল্যায়নের পর সেই বিষয়েই সুপ্রিয়া পেয়েছে ১০০ তে ১০০!

সুপ্রিয়া অভিযোগ করেছেন যে, তার পরীক্ষার্থীর উত্তরপত্র যথাযথভাবে মূল্যায়ন করা হয়নি বলেই দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় তাকে ভুল করে গণিতের মাত্র দুটি নম্বর দেওয়া হয়েছিল। তবে পুনর্মূল্যায়নের পরে তিনি একই বিষয়ে ১০০ নম্বর পেয়েছেন।

আংশিক অন্ধ সুপ্রিয়া জানিয়েছে, 'আমাকে গণিত পরীক্ষায় ২ নম্বর দেওয়া হয়েছিল। আমি হতবাক এবং দু:খিত হয়েছিলাম। আমার বাবা পুনরায় মূল্যায়নের জন্য আবেদন করেছিলেন এবং পুনরায় মূল্যায়নের পরে আমি ১০০ নম্বর পেয়েছি। আমি বোর্ডের কাছে দাবি জানাতে চাই যে অন্য কোনো শিক্ষার্থীর সাথে যেন এ ঘটনা আর না ঘটে।'

সুপ্রিয়ার বাবা ছাজমুরম বলেছিলেন যে, তার মেয়ে সকল বিষয়ে ৯০ এর বেশি নম্বর পেয়েছে, তবে গণিতে মাত্র ২ পেয়েছিল। এটা অস্বাভাবিক মনে হওয়ায় তিনি খাতা পুনরায় মূল্যায়নের জন্য আবেদন করেছিলেন।

তিনি বলেন, 'আমি পুনরায় মূল্যায়নের জন্য আবেদন করার প্রক্রিয়ায় ৫ হাজার টাকা ব্যয় করেছি। আমি একজন গণিতের শিক্ষক। আমার মেয়ে গণিত ব্যতীত সকল বিষয়ে ভাল নম্বর অর্জন করেছে, তাই আমি পুনরায় মূল্যায়নের জন্য আবেদন করেছি। পরে পুনরায় মূল্যায়ন করার পরে আমার মেয়ে ১০০ নম্বর পেয়েছে।

সুপ্রিয়ার স্কুল সরকারী সিনিয়র মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হিশারের অধ্যক্ষ হৃষীকেশ কুন্ডু বলেছিলেন যে স্কুল পুনরায় খোলার পরে সুপ্রিয়াকে সম্মানিত করা হবে। সুপ্রিয়া একজন কঠোর পরিশ্রমী শিক্ষার্থী। সে পড়াশোনায় ভাল এবং বিদ্যালয় পুনরায় খোলার পরে আমরা তাকে সম্মান জানাব।

হরিয়ানার বোর্ড অব স্কুল এডুকেশন (বিএসএইচই) ১০ জুলাই দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষার ফলাফল তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে।

সূত্র : এএনআই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা