kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

চার দশক পর ওয়েলসের কাছে হারল তুরস্ক

পেনাল্টি মিস করেও নায়ক বেল

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ জুন, ২০২১ ০৭:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চার দশক পর ওয়েলসের কাছে হারল তুরস্ক

চার দশক পর তুরস্ককে হারাল ওয়েলস। এর আগে সবশেষ ১৯৮১ সালে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ১-০ ব্যবধানে জিতেছিল তারা। মাঝে দুইবারের দেখায় একটিতে হেরেছিল, ড্র করেছিল অন্যটি। আসরের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়ে ১-১ গোলে ড্র করেছিল ওয়েলস। তুরস্ক হারল দুই ম্যাচেই; আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে ইতালির কাছে ৩-০ গোলে হেরেছিল তারা। ফলে ইউরো ২০২০ থেকে তুরস্কের বিদায় অনেকটা নিশ্চিতই হয়ে গেছে।

বুধবার (১৬ জুন) রাতে আজারবাইজানের বাকু অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে ওয়েলস। অ্যারন র‌্যামজির গোলে তারা এগিয়ে যাওয়ার পর ব্যবধান বাড়ান কনর রবার্টস।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শুরু থেকে জমে ওঠা ম্যাচে দুই দলই পেল অসংখ্য সুযোগ। কাজে লাগাতে পারল শুধু ওয়েলস। পেনাল্টি মিসের আগে-পরে সতীর্থের গোলে অবদান রাখলেন দলের সবচেয়ে বড় তারকা গ্যারেথ বেল। আর তাতেই এবারের ইউরোতে প্রথম জয়ের স্বাদ পেল ওয়েলস। উজ্জ্বল হলো পরের রাউন্ডে যাওয়ার আশা।

গোটা ম্যাচের ৬৩ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে ওয়েলসের গোল বরাবর ১৮টি শট নেয় তুরস্ক। বিপরীতে মাত্র ৩৭ শতাংশ বল দখলে রেখেও ১৬টি শট ওয়েলসের। যার মধ্যে ৭টি ছিল লক্ষ্য বরাবর। ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় ওয়েলস। বেলের থ্রু বল ডি-বক্সে পেয়ে এক ডিফেন্ডারের বাধা এড়িয়ে ছয় গজ বক্সের কোণা থেকে শট নেন অ্যারন রামসি। তবে পা বাড়িয়ে ঠেকান তুর্কি গোলরক্ষক উরজান চাকির।

এর মিনিট তিনেক পরে সুযোগ আসে তুরস্কের সামনেও তবে ডান দিক থেকে সতীর্থের পাস ডি-বক্সে পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন স্ট্রাইকার বুরাক ইলমাজ। এরপর ২৪তম মিনিটে আরেকটি দারুণ সুযোগ পান রামসি। এবারেও বেলের দারুণ এক ক্রস ডি-বক্সে পান তিনি। তবে গোলরক্ষকের সঙ্গে ওয়ান-অন-ওয়ানে বল বাইরে মেরে ওয়েলসকে হতাশ করেন রামসি।

তবে বিরতির মিনিট তিনেক আগে অর্থাৎ খেলার ৪২তম মিনিটে বেলের দুর্দান্ত এক লম্বা ক্রসে ডি-বক্সে বল পান রামসি। ডি-বক্সের ভেতর ক্রস বুক দিয়ে নামিয়ে ডান পায়ের শটে তুর্কি গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়িয়ে ওয়েলসকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে নেন জুভেন্টাসের এই তারকা মিডফিল্ডার।

বিরতির পর ম্যাচের ৫৫তম মিনিটে সমতায় ফেরার দারুণ এক সুযোগ হাতছাড়া করেন তুর্কি স্ট্রাইকার ইলমাজ। এর মাত্র পাঁচ মিনিট পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ আসে ওয়েলসের সামনে। বেল ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। কিন্তু স্পট কিক থেকে বল গোলপোস্টের ওপর দিয়ে মেরে হতাশ করেন গ্যারেথ বেল।

এরপর ম্যাচের ৭৯তম মিনিটে আরও একটি সুযোগ পান বেল। রামসির ক্রসে তার হেড ফেরান গোলরক্ষক। ম্যাচের যোগ করা অতিরিক্ত সময়ের ৫ম মিনিটে বেলের দ্বিতীয় অ্যাসিস্ট থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কনর রবার্টস। আর তাতেই ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ওয়েলস।

গ্রুপের শেষ ম্যাচে আগামী রবিবার ইতালির মুখোমুখি হবে ওয়েলস। একই দিনে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে লড়বে তুরস্ক।



সাতদিনের সেরা