kalerkantho

সোমবার  । ১৬ চৈত্র ১৪২৬। ৩০ মার্চ ২০২০। ৪ শাবান ১৪৪১

আইওটি নিয়ে বুটক্যাম্প

দেশের শিল্প কারখানা আমুল বদলে দেবে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০২০ ১৮:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের শিল্প কারখানা আমুল বদলে দেবে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা

কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা, আইওটি, ব্লকচেইন এসব প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, পণ্য সরবরাহ, চিকিৎসা, শিল্পকারখানা, ব্যাংকিং, কৃষি, শিক্ষাসহ নানা ক্ষেত্রে কাজ করার পরিধি এখনো তাই ব্যাপকভাবে উন্মুক্ত হচ্ছে। আগামী দিনগুলোয় চিকিৎসাসেবায়, অফিস-আদালতে, শিল্প-কারখানায়, সংবাদসংস্থা বা গণমাধ্যমে, হোটেল-রেস্তোরাঁ এমনকি বিপণি বিতানসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কর্মক্ষেত্রে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন যন্ত্র তথা রোবটের ব্যাপক ব্যবহার বাড়বে। বাংলাদেশেও বিভিন্ন উৎপাদনমূখী খাতে এর ব্যবহারে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে।

আজ আইওটি (ইন্টারনেট অব থিংস) নিয়ে একটি বুটক্যাম্পে বক্তারা এসব কথা বলেন। আজ রাজধানীতে এমসিসির প্রধান কার্যালয়ের ল্যাবে অনুষ্ঠিত এই বুটক্যাম্পে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। আইওটি’র ধারণা দেশে প্রায় নতুন হওয়ায়, এ বিষয়ক ভবিষ্যৎ প্রস্তুতি গ্রহণ সম্পর্কে যথাযথ ধারণার অভাব। এই অভাব পূরণ করতে আয়োজিত বুটক্যাম্পে আইওটি নিয়ে কাজ করার বাস্তব অভিজ্ঞতা, প্রকৗশলগত দিকগুলোকে নিয়ে আলোচরা হয়। ৭ ঘন্টার এই বুটক্যাম্পে অংশগ্রহনকারীরা বেশ কিছু প্রোটোটাইপও নির্মাণ করেন।

বুটক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মানুষের জীবন যাপন, উৎপাদন ব্যবস্থা, পরিবহন ও যোগাযোগের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়েগুলোতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও আইওটি’র ব্যবহার শুরু করেছে। স্মার্ট ফোন ও ইন্টারনেটের সাথে কানেক্ট করে পরিচালনা করা যায় এবং এই ব্যবহার থেকে লাখ লাখ ডেটা সংগ্রহ ও শেয়ার করা যায় এমন যে কোন ফিজিক্যাল ডিভাইসের চাহিদা ও ব্যবহার প্রতিনিয়তই বাড়তে থাকবে। ইন্ডাস্ট্রিতে এই ধরনের বুদ্ধিমান মেশিন ব্যবহার শুরু করার মাধ্যমে পৃথিবী দাঁড়িয়ে আছে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের দ্বারপ্রান্তে। বাংলাদেশেও এসব প্রযুক্তির ব্যবহারে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমসিসি লিমিটেডের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো আইওটি বুটক্যাম্প।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা