kalerkantho

জন্মকথা
শুভ জন্মদিন

জন্মের পর আমার ওজন ছিল ৬ পাউন্ড

মাকসুদুল হক   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জন্মের পর আমার ওজন ছিল ৬ পাউন্ড

এ সপ্তাহে যাঁদের জন্মদিন

[১২ সেপ্টেম্বর—১৯ সেপ্টেম্বর]

 

►  জিতু আহসান [১২ সেপ্টেম্বর] 

►  মাকসুদ, নাতাশা হায়াত, আশীষ খন্দকার, মৌমিতা নদী,      সৌমিক আহমেদ [১৩ সেপ্টেম্বর]

►  খুরশিদুজ্জামান উৎপল [১৪ সেপ্টেম্বর]

►  শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম [১৫ সেপ্টেম্বর] 

►  শারমিন সুলতানা সুমী, আরিক আনাম খান [১৬ সেপ্টেম্বর] 

►  লামিয়া মিমো [১৭ সেপ্টেম্বর]

►  জোভান, আবীর মির্জা [১৮ সেপ্টেম্বর]

►  আব্দুল্লাহ জহির বাবু, জয় শাহরিয়ার [১৯ সেপ্টেম্বর]

 

১৬ সেপ্টেম্বর ১৯৬৭, সম্ভবত সেদিনটা ছিল মঙ্গলবার। বারটা আমার ঠিক খেয়াল নেই। নারায়ণগঞ্জের আমলাপাড়ায় আমার জন্ম। সাধারণ পরিবারের সন্তান। আমার জন্ম হয় বাসায়ই, ধাত্রীর মাধ্যমে। ধাত্রীর নাম হরিবালা। বড় হয়েও তাঁকে দেখেছি। আমরা দিদি ডাকতাম। আমরা বড় হওয়ার পরও তিনি আমাদের বাসায় আসতেন। পূজা-পার্বণে আমাদের জন্য মিষ্টি নিয়ে আসতেন। আমরা দুই ভাই-বোন। বড় বোন এক বছরের বড়। পিঠাপিঠিই বলা চলে। বোন এখন কানাডার টরন্টোতে থাকেন। আমার জন্মের সময় বাবা ছিলেন বিদেশি একটি রঙের কম্পানির সেলসম্যান। বড় আদরের ছিলাম আমি।

শুনেছি জন্মের পর আমার ওজন খুব বেশি ছিল, প্রায় ৬ পাউন্ড। আমার জন্মের সময় মায়ের স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি কষ্ট হয়েছে বলে শুনেছি। আমার জন্মের পরও মা অনেক দিন সাফার করেছেন। তাঁকে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হয়েছে দীর্ঘদিন। অনেক কষ্টেই আমার জন্ম হয়। বাড়িতে এত বড় বাচ্চা স্বাভাবিকভাবে জন্ম হয়, সেটা ভাবলে এখন খুব খারাপ লাগে। আমার মা কত কষ্ট পেয়েছেন!

অনুলিখন : ইসমাত মুমু

মন্তব্য