kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নারীর নিফাসের বিধান

ইবরাহিম সুলতান

২ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শরিয়তের পরিভাষায় ‘নিফাস’ বলা হয় সন্তান প্রসবের পর নারীর জরায়ু থেকে যে রক্ত ঝরে সেই অবস্থাকে। এর সর্বোচ্চ সীমা ৪০ দিন। এর সর্বনিম্ন সীমা নেই, অল্প কিছুক্ষণও হতে পারে। নিফাস অবস্থায় সব বিধান মাসিক স্রাবের অনুরূপ।

বিজ্ঞাপন

অর্থাৎ নারীরা মাসিক ও প্রসবজনিত বিশেষ দিনগুলোতে নামাজ-রোজা পালন করতে পারবেন না। পরে এসব নামাজের কাজাও নেই, তবে রোজা কাজা করে নিতে হবে। তবে অনেক নারী মনে করেন, প্রসবের ৪০ দিন পার না হওয়া পর্যন্ত নামাজ-রোজা কিছু নেই। এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। কারণ নিফাসের সর্বোচ্চ মেয়াদ ৪০ দিন নির্ধারিত থাকলেও সর্বনিম্নের কোনো সীমা উল্লেখ নেই। ৪০ দিনের আগে কোনো নারীর স্রাব বন্ধ হয়ে গেলে তিনি তখন থেকেই নামাজ আদায় শুরু করবেন। আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুল (সা.) নিফাসের মেয়াদ সাব্যস্ত করেছেন ৪০ দিন। তবে যদি এর আগে পবিত্র হয়ে যায়, তাহলে ভিন্ন কথা। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৬৪৯)

অন্য বর্ণনায় উসমান ইবনে আবুল আস (রা.) বলেন, নিফাসগ্রস্ত মহিলাদের সময়সীমা ৪০ দিন। তবে যদি এর আগেই পবিত্র হয়ে যায়, (তাহলে পবিত্রতার বিধান শুরু হয়ে যাবে) অন্যথায় ৪০ দিন পর নামাজ শুরু করতে বিলম্ব করবে না। (মুসনাদে দারেমি, বর্ণনা : ১০৩৭)



সাতদিনের সেরা