kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আসিফ বিন বারখিয়া (রহ.)

যিনি চোখের পলকে রানি বিলকিসের সিংহাসন হাজির করেন

মো. আবদুল মজিদ মোল্লা   

১২ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যিনি চোখের পলকে রানি বিলকিসের সিংহাসন হাজির করেন

কিরগিজস্তানের ওশ নগরীতে আসিফ বিন বারখিয়া (রহ.)-এর সমাধি

নবী সুলাইমান (আ.) ও রানি বিলকিসের ঘটনা কোরআনসহ প্রায় সব আসমানি গ্রন্থে বর্ণিত হয়েছে। সুলাইমান (আ.)-এর পাখি হুদহুদ রানি বিলকিসের রাজত্বের সংবাদ দেওয়ার পর তিনি রানি বিলকিসের সিংহাসন নিজ দরবারে নিয়ে আসার ইচ্ছা করেন। তখন সুলাইমান (আ.)-এর একজন সভাসদ আল্লাহর কালামের সাহায্যে তা চোখের পলকে উপস্থিত করেন। তাফসিরবিদ ও ঐতিহাসিকদের মতে, সেই সভাসদের নাম আসিফ বিন বারখিয়া (রহ.)।

বিজ্ঞাপন

কোরআনে সিংহাসন উপস্থিত করার বর্ণনা : পবিত্র কোরআনে ঐতিহাসিক সেই ঘটনার বিবরণ এভাবে এসেছে যে ‘সুলাইমান আরো বলল, হে আমার পরিষদবর্গ, তারা আত্মসমর্পণ করে আমার কাছে আসার আগে তোমাদের মধ্যে কে তাঁর সিংহাসন আমার কাছে নিয়ে আসবে? এক শক্তিশালী জিন বলল, আপনি আপনার স্থান থেকে ওঠার আগেই আমি তা এনে দেব এবং এই ব্যাপারে আমি অবশ্যই ক্ষমতাবান, বিশ্বস্ত। কিতাবের জ্ঞান যার ছিল, সে বলল, আপনি চোখের পলক ফেলার আগেই আমি তা আপনাকে এনে দেব। সুলাইমান যখন তা সম্মুখে রক্ষিত অবস্থায় দেখল, তখন সে বলল, এটা আমার প্রতিপালকের অনুগ্রহ, যাতে তিনি আমাকে পরীক্ষা করতে পারেন—আমি কৃতজ্ঞ না অকৃতজ্ঞ। ’ (সুরা নামল, আয়াত : ৩৮-৪০)

কে এই আসিফ বিন বারখিয়া : আল্লামা ইবনে কাসির (রহ.) আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.)-কে উদ্ধৃত করে লেখেন, তাঁর নাম আসিফ। সুলাইমান (আ.)-এর লেখক ছিলেন। কাতাদা (রহ.) বলেন, তিনি মানুষ ছিলেন এবং বনি ইসরাঈলের মুমিন বান্দা ছিলেন। তবে মুজাহিদ (রহ.)-এর মতে তাঁর নাম ছিল উসতুম।

কোন অঞ্চলের লোক ছিলেন? : ঐতিহাসিকদের সাধারণ বর্ণনা থেকে বোঝা যায়, তিনি ফিলিস্তিন অঞ্চলের অধিবাসী ছিলেন এবং বনি ইসরাঈলের বংশোদ্ভূত ছিলেন। তবে ঐতিহাসিক জুহাইর বিন মুহাম্মদ বলেছেন, তিনি আন্দুলুসের (আধুনিক স্পেন ও পর্তুগাল) অধিবাসী ছিলেন। নাম ছিল জুন-নুর।

যেভাবে উপস্থিত করেন : ঐতিহাসিক ইবনে ইসহাক বলেন, তাঁর নাম ছিল আসিফ বিন বারখিয়া। তিনি ছিলেন সত্যবাদী এবং তিনি ‘ইসমে আজম’ (আল্লাহর মহান নাম) জানতেন। ইসমে আজমের বরকতে সিংহাসন উপস্থিত করেন। আল্লাহর বাণী ‘আপনি চোখের পলক ফেলার আগেই আমি তা আপনাকে এনে দেব’-এর ব্যাখ্যায় আল্লামা ইবনে কাসির (রহ.) বলেন, আপনি আপনার দৃষ্টিকে শেষ সীমা পর্যন্ত যথাসম্ভব বিস্তৃত করুন এবং আপনার দৃষ্টি ক্লান্ত হয়ে ফিরে আসার আগেই আমি সিংহাসন উপস্থিত করব।

যে স্থান থেকে হাজির করেছিলেন : ঐতিহাসিকদের দাবি, কোরআনে বর্ণিত রানি বিলকিসের রাজত্ব আরব উপদ্বীপের বর্তমান ইয়ামেন অঞ্চলে বিস্তৃত ছিল। সেখান থেকেই রানি বিলকিসের সিংহাসন উপস্থিত করা হয়।

মৃত্যু ও সমাধি : আনুমানিক তিন হাজার বছর আগে মনীষী আসিফ বিন বারখিয়ার মৃত্যু হয়। দাবি করা হয় কিরগিজস্তানে ওশ নগরীর এই সমাধিতে শুয়ে আছেন তিনি, যা নগরীর সুলাইমান পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত। তবে তুরস্কের দিয়ারে বাকার প্রদেশের একটি সমাধি ক্ষেত্রকেও আসিফ বিন বারখিয়ার বলে দাবি করা হয়।

তথ্যঋণ : তাফসিরে ইবনে কাসির ও উইকিওয়ান্ড



সাতদিনের সেরা