kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ অক্টোবর ২০২২ । ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বসুন্ধরার ঘর পেয়ে দুঃখ ঘুচল শাহানুরের

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ২২:০৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বসুন্ধরার ঘর পেয়ে দুঃখ ঘুচল শাহানুরের

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন এলাকার শাহানুর। সড়ক দুর্ঘটনায় তার স্বামী মারা যাওয়ার পর দুই শিশু নিয়ে অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করছিলেন। মাটির দেয়ালের জীর্ণ ঘরে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছিল তার। বৃষ্টির সময় দেয়াল ভেঙে পড়ার ভয়ে ছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

ভূমিহীন শাহনুরের নতুন ঘর তৈরির সামর্থ্য না থাকায় চরম বিপাকে পড়েন। বিষয়টি নজরে আসে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের সদস্যদের। পরে শাহানুরের মায়ের কাছ থেকে প্রাপ্ত দেড় কাঠা জমিতে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় কালের কণ্ঠ শুভসংঘ একটি ঘর তৈরি করে দেওয়ার উদ্যোগ নেয়।

রবিবার (১৪ আগস্ট) বিকেলে বসুন্ধরা গ্রুপের ‘অসহায়দের স্বাবলম্বী করার উদ্যোগ’ কর্মসূচিতে শাহানুর ও তার দুই সন্তানের হাতে নবনির্মিত ঘরের চাবি তুলে দেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাধন কুমার বিশ্বাস। এর আগে শাহানুরের ছেলে-মেয়ের পড়ালেখার দায়িত্ব নেয় বসুন্ধরা গ্রুপ। এ ছাড়া শাহানুরের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বসুন্ধরা গ্রুপের সহযোগিতায় তাকে একটি সেলাই মেশিন দেওয়া হয়েছে।

ঘর পেয়ে খুশি শাহানুর খাতুন বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের দেওয়া এই ঘর পেয়ে তার সেই কষ্ট ও ভয় দূর হয়েছে।  বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যানের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া ও মঙ্গল কামনা করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘সেলাই মেশিন পেয়ে হাতের কাজ করে এখন সংসারে সচ্ছলতা আনতে পারছি। এ ছাড়াও আমার ছেলে-মেয়ের পড়ালেখার দায়িত্ব নেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপ এবং শুভসংঘের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ’

কালের কণ্ঠের নিজস্ব প্রতিবেদক তারিকুল হক তারিকের সঞ্চালনায় ঘরের চাবি হস্তান্তরের সময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া সদর সহকারী কশিনার (ভূমি) দবির উদ্দিন, সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাক হোসেন মাসুদ, কালের কণ্ঠ শুভসংঘ কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক কাকলি খাতুন, সহসাধারণ সম্পাদক সুমাইয়া ইসলাম, প্রচার সম্পাদক এস এম জামাল জয়, মুন্তাসির, পপি, রিয়া, নাফিস, সমাজসেবক তরুণ কুমার ঘোষ প্রমুখ।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাধন কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে, তাদের স্বাবলম্বী করে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে শুভসংঘ। বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যানের নির্দেশনায় দেশের অসহায় মানুষের কল্যাণে তারা এই করছে। এ ধরনের ভালো কাজের সাথে আমরা যুক্ত হতে পেরে নিজেদেরকেও এই ভালো কাজের অংশীদার মনে করছি। ’

তিনি আরো বলেন, দরিদ্র, স্বামীহারা, বিধবা ও পিছিয়ে পড়া নারীদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি ও স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সরকারের পাশাপাশি বসুন্ধরা গ্রুপ নানাভাবে যে কাজ করছে এটা অনেক বড় কাজ। পাশাপাশি আজকে এই ঘরের চাবি প্রদানের মাধ্যমে শাহানুরের মাধা গোঁজার ঠাই নিশ্চিত হলো।



সাতদিনের সেরা