kalerkantho

শনিবার । ৩১ আশ্বিন ১৪২৮। ১৬ অক্টোবর ২০২১। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুঃশাসনে শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে সরকার: মান্না

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:০৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুঃশাসনে শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে সরকার: মান্না

ফাইল ফটো

বর্তমান সরকার গত এক যুগের বেশি সময়ের অপশাসন, দুঃশাসনে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা জাতিকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিয়েছে। আজ (রবিবার) নাগরিক ছাত্র ঐক্য আয়োজিত কর্মীসভায় এসব কথা বলেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখান ইউনিয়নের সারডোব উচ্চ বিদ্যালয়ের উদাহরণ টেনে মান্না বলেন, একটা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির নয়জন ছাত্রীর মধ্যে আটজনেরই এই করোনাকালে বিয়ে হয়ে গেছে। দেড় বছর পর বিদ্যালয় খোলার পর কেবল একজন ছাত্রী শ্রেণীকক্ষে ফিরেছে। এটা সমগ্র বাংলাদেশের চিত্র। ভোট ডাকাত স্বৈরাচার সরকার করোনা মোকাবেলায় নিজেদের সফল দাবি করে। অথচ পৃথিবীর কোন দেশে এত দীর্ঘ সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল না। করোনায় দেশে নতুন করে আড়াই কোটি মানুষ দারিদ্র্য সীমার নিচে চলে গেছে। একদিকে দারিদ্র্য, অন্যদিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। এই দুইয়ের কারণে আজকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। অথচ এ ব্যাপারে সরকারের কোন ভ্রূক্ষেপ নেই। কারণ ক্ষমতাসীনরা জাতিকে মেধাশূণ্য করতে চায়। তাদের একমাত্র লক্ষ্য অবৈধ ক্ষমতা টিকিয়ে রাখা।

বাংলাদেশের ছাত্র রাজনীতির অতীত ঐতিহ্যকে স্মরণ করে ডাকসুর সাবেক এই দুইবারের ভিপি বলেন, সরকার কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে ভয় পায়। তারা জানে, সরকারের এই অপশাসন, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ছাত্র সমাজ জেগে উঠলে তারা তাদের অবৈধ গদি টিকিয়ে রাখতে পারবে না।

প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফর প্রসঙ্গে মান্না বলেন, করোনা মহামারী এবং সরকারের দুঃশাসন, লুটপাটে দেশ যখন জর্জরিত, দেশের অর্থনীতি যখন ধ্বংসের মুখে, দেশে দারিদ্রের হার যখন হু হু করে বাড়ছে সেই সময় ভোট ডাকাত সরকারের প্রধানমন্ত্রী জনগণের টাকায় প্রতি ঘন্টায় ৪০ হাজার ডলার খরচ করে চার্টার্ড বিমানে করে আত্মীয় স্বজনদের সাথে দেখা করতে যায়। এই টাকায় দেশের দরিদ্র মানুষের ছেলে মেয়েরা যারা দারিদ্রের কারণে লেখাপড়া করতে পারছে না, তাদের শিক্ষার ব্যবস্থা করা যেত। কিন্তু সেসব নিয়ে সরকারের কোন মাথা ব্যথা নেই।

নাগরিক ছাত্র ঐক্যের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ হলের সাবেক ভিপি জিন্নুর চৌধুরী দিপু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং তিতুমীর কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক সম্পাদক আনিসুর রহমান খসরু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. জাহেদ উর রহমান, নাগরিক ছাত্র ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।



সাতদিনের সেরা