kalerkantho

মঙ্গলবার । ১ আষাঢ় ১৪২৮। ১৫ জুন ২০২১। ৩ জিলকদ ১৪৪২

গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রদের ঈদের আগে জামিন দাবি

অনলাইন ডেস্ক   

৮ মে, ২০২১ ১৭:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রদের ঈদের আগে জামিন দাবি

ঈদের আগে গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রদের জামিনে মুক্তির ক্ষেত্রে বাধা দূর করতে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে প্রধান বিচারপতির কাছে ১৮ জন বিশিষ্ট নাগরিকের চিঠি প্রসঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বলা হয়, জামিন পাওয়া সাংবিধানিক অধিকার হলেও বিচারিক প্রক্রিয়ার বাইরে নানা প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক বাধা তৈরি করে এই অধিকার ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। প্রধান বিচারপতির কাছে এ বিষয়ে প্রতিকার চাওয়া হয়।

আজ শনিবার, বেলা ১২ টায় ধানমন্ডি গণস্বাস্থ কেন্দ্রের বীর উত্তম মেজর হায়দার মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে চিঠি পাঠ এবং মূল বক্তব্য তুলে ধরেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। এতে র্ভাচুয়ালি বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আইনজীবী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন এবং ইপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

এতে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারি জোনায়েদ সাকি। উপস্থিত ছিলেন লেখক-নৃবিজ্ঞানী রেহনুমা আহমেদ, বিশিষ্ট  আলোকচিত্রী শহীদুল আলম, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, মুক্তিযোদ্ধা ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, জামিন পাওয়া সাংবিধানিক অধিকার হলেও বিচারিক প্রক্রিয়ার বাইরে নানা প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক বাধা তৈরি করে এই অধিকার ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। প্রধান বিচারপতির কাছে এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে তার সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে প্রয়াজনীয় ভূমিকা গ্রহণের জন্য নাগরিকদের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়।

এর আগে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে ১৮ জন বিশিষ্ট নাগরিকের পাঠানো এক পত্রে মানবিক কারণে রোজার ঈদের আগে ছাত্রদের জামিনে মুক্তির দাবি করা হয়। এতে বলা হয়, সম্প্রতি সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, পেনাল কোডসহ বিভিন্ন আইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সাবেক সমাজকল্যান সম্পাদক আখতার হোসেনসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের অর্ধ শতাধিক ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে। তাদের আদালতে হাজির করা হলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে আদালত তাদের পুলিশ রিম্যান্ডে প্রেরণ করেছে। গ্রেফতারের পর পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে যেসব মামলার কথা বলেছে তা কয়েক মাস থেকে কয়েক বছরের পুরোনো এবং মামলাগুলো রাজ‣নতিক হয়রানীর জন্য করা হয়েছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।



সাতদিনের সেরা