kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘সমাজে বৈষ্যম বাড়ায় দুর্নীতি’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘সমাজে বৈষ্যম বাড়ায় দুর্নীতি’

ঢাকা লিট ফেস্টের এক অধিবেশনে চার দেশের চারজন সাহিত্যিক এক হয়েছিলেন। সেসময় তারা দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলেন। তাদের মতে, সমাজে বৈষম্য বাড়ায় দুর্নীতি।

শুক্রবার ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রহমান সেমিনার কক্ষে ‘ইনইকুয়ালিটি: অল দ্য রেজ’ শীর্ষক অধিবেশনে তারা এসব কথা বলেন।

অধিবেশনটিতে অংশ নেন ব্রাজিলের লেখক মারিয়া ফিলোমেনা, সিঙ্গাপুরের সাংবাদিক ও লেখক জেমস ক্র্যাবট্রি, ব্রিটিশ লেখক কেনান মালিক এবং নেদারল্যান্ডসের লেখক আরনেস ভেনডার কয়েস্ট। এটি সঞ্চালনা করেন ভারতীয় সাংবাদিক প্রিয়াঙ্কা দুবে।

ব্রাজিলের লেখক মারিয়া ফিলোমেনা বলেন, নব্বই দশকের শুরুতে ব্রাজিলে অসমতা শুরু হয়। ঐতিহাসিক প্যারাগুয়ের যুদ্ধে সৈনিকের বেশে দাসদের ব্যবহার করা হয়েছিল। পরবর্তীতে সেই দাসরা দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন। কারাগার থেকে বের হয়ে আসার পর তাদের জন্য কোনো সমাজ ছিল না। যে রাজনীতির কারণে তাদেরকে কারাগারে যেতে হয়েছিল, সেই রাজনীতিবিদরা তাদের গ্রহণ করেননি।

তিনি বলেন, আমার মতে, ব্রাজিল এই সময়ে সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ। বড় একটি দুর্নীতির ঘটনায় ব্রাজিলের রাষ্ট্রপতি এখনো কারাগারে। তার সঙ্গে আরো চারজন গভর্নর অভিযুক্ত।

সিঙ্গাপুরের সাংবাদিক ও লেখক জেমস ক্র্যাবট্রি বলেন, বছর কয়েক আগে আমি ‘দ্য বিলিয়নিয়ার রাজ’ বইয়ের জন্য মুকেশ আম্বানির সাক্ষাৎকার নেই। মুম্বাই বিমানবন্দরে নামার পর আমার গাড়িচালক আমাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। বাড়ির কাছে গিয়ে গাড়িচালক উচ্ছ্বসিত হয়ে বললো, ‘এটিই সেই বাড়ি।’ একজন বিত্তবানের বাড়ির মূল্য দুই হাজার কোটি টাকা। বাড়ি বললেও ভুল হবে, সেটা একটি কলোনি। পশ্চিমা দেশগুলোতে কখনো বিত্তশালীর এরকম বাড়ি দেখা যায় না।

ব্রিটিশ লেখক কেনান মালিক বলেন, অসমতা কোনো সমাজই মেনে নিতে পারে না। সমাজে অসমতা বেড়ে গেলে, তা আর সমাজের মতো আচরণ করে না।

নেদারল্যান্ডসের লেখক আরনেস ভেনডার কয়েস্ট বলেন, যে সমাজ অসমতা দূরীকরণের আলো জ্বালায়, সেটি ভালো সমাজ। সব সমাজের এরকম গুণ থাকে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা