kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বন্ধ বেসরকারি টিভি চ্যানেল নাইনের এমডি বাপ্পী কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক    

২৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বন্ধ বেসরকারি টিভি চ্যানেল নাইনের এমডি বাপ্পী কারাগারে

প্রতীকী ছবি

আমদানি সুবিধা নিয়ে শুল্কমুক্ত গাড়ি কিনে তা বিক্রি করে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার অপরাধে সহযোগিতার দায়ে সাজাপ্রাপ্ত বেসরকারি টিভি চ্যানেল নাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনায়েতুর রহমান বাপ্পীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার একটি আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গতকাল ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এ বাপ্পী আত্মসমর্পণ করেন। বিচারক শেখ নাজমুল আলম তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত ২১ অক্টোবর বিএনপির সাংসদ হারুণ অর রশীদকে (চাঁপাইনবাবগঞ্জের সংসদ সদস্য) পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয় এবং এনায়েতুর রহমান বাপ্পীকে দুই বছর ও ব্যবসায়ী ইশতিয়াক সাদেককে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। বাপ্পী রায়ের সময় পলাতক ছিলেন।

কারাদণ্ডের পাশাপাশি হারুন অর রশীদকে ৫০ লাখ টাকা, বাপ্পীকে এক লাখ টাকা ও সাদেককে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানার টাকা দিতে ব্যর্থ হলে হারুনকে ছয় মাস, বাপ্পীকে দুই মাস ও সাদেককে ছয় মাস কারাভোগ করতে হবে বলে রায়ে বলা হয়।

রায় ঘোষণার সময় হারুন অর রশীদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পর তাঁকে সাজা পরোয়ানাসহ কারাগারে পাঠানো হয়। গত ২৮ অক্টোবর হারুন অর রশীদকে হাইকোর্ট ছয় মাসের জামিন দেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, হারুন অর রশীদ বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে ২০০৫ সালে ব্রিটেন থেকে একটি হামার ব্রান্ডের গাড়ি শুল্কমুক্ত সুবিধা নিয়ে ক্রয় করেন। গাড়িটি তিনি পরে আসামি ইশতিয়াক সাদেকের কাছে ৯৮ লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন। এরপর সাদেক গাড়িটি চ্যানেল নাইনের এমডি বাপ্পির কাছে বিক্রি করেন। নিয়ম অনুযায়ী শুল্কমুক্ত গাড়ি তিন বছরের মধ্যে বিক্রি করলে শুল্ক দিতে হয়, কিন্তু আসামি হারুন শুল্ক না দিয়ে বিশ্বাস ভঙ্গ করেন।

এ অভিযোগে ২০০৭ সালের ৭ মার্চ তেজগাঁও থানার উপপরিদর্শক ইউনুছ আলী মামলা দায়ের করেন। মামলায় ২০০৭ সালের ১৮ জুলাই তাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়। একই বছর তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। বিভিন্ন সময়ে ১৭ জন সাক্ষী এ মামলায় সাক্ষ্য দেন।



সাতদিনের সেরা