kalerkantho

মঙ্গলবার । ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৪ নভেম্বর ২০২০। ৮ রবিউস সানি ১৪৪২

ডার্ক সার্কেল দূর করার জাদুকরী কিছু উপায়

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ অক্টোবর, ২০২০ ১০:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ডার্ক সার্কেল দূর করার জাদুকরী কিছু উপায়

বর্তমান দিনে চোখের নিচের ডার্ক সার্কেল খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি সমস্যা। চিকিৎসকের ভাষায় চোখে নিচ দেখলেই একজন মানুষের স্বাস্থ্যের অবস্থা সম্পর্কে জানা যায়। রাতে পর্যাপ্ত না ঘুমানো, মানসিক চাপ, বিষণ্ণতা ইত্যাদি কারণে চোখের নিচে ডার্ক সার্কেল পড়তে পারে। তবে অনেকের বংশগত কারণেও চোখের নিচে কালো দেখা যায়। চোখের নিচের ডার্ক সার্কেল সব মানুষের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি সমস্যা। তবে এমন কিছু খাবার আছে যা খেলে চোখের ডার্ক সার্কেল অনেকটা দূর হবে।

টমেটো:

টমেটো ডার্ক সার্কেল দূর করতে খুবই কার্যকরি। এছাড়া টমেটো ত্বককে দাগ মুক্ত করে। এক চা চামুচ টমেটোর রসের সাথে এক চা চামুচ লেবুর রস মিশিয়ে চোখের নিচে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে ২বার করতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহারে দ্রুত উপকার পাবেন। এছাড়া টমেটোর রস, লেবুর রস ও পুদিনাপাতার জুস খেতে পারেন।

শসা:

শসায় অনেক বেশি পানি রয়েছে যা ত্বককে হাইড্রেট করে। শসা খেলে কোলেজন উৎপাদন বেড়ে যায়, যা ত্বকের জন্য জরুরী। এছাড়া শসায় ভিটামিন কে, এ,ই,সি রয়েছে যা রক্তনালীগুলির স্থিতিস্থাপকতা এবং রক্ত জমাট বাঁধার উন্নতি করে।

তরমুজ:

তরমুজ বিটা ক্যারোটিন সহ অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলিতে সমৃদ্ধ যা চোখের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখে। এতে ৯২ ভাগ জল রয়েছে যা শরীরকে হাইড্রেট করতে পারে। এছাড়া তরমুজে ভিটামিন এ,বি১, বি৬, পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে।

জাম:

জাম ওমেগা ৩, ভিটামিন কে এবং সি এবং ম্যাঙ্গানিজ সমৃদ্ধ। এগুলোর সবগুলিই চোখের সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজন। এটি চোখের সঞ্চালন উন্নত করতে এবং রক্তনালীগুলিকে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার:

ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবারগুলি ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা ভঙ্গকারী এনজাইমগুলির সাথে লড়াই করে। এছাড়া ভিটামিন ই ফ্রি র‌্যাডিকেলগুলির বিরুদ্ধে লড়াই করে যার কারণে  রিংকেল পড়ে। এটি দাগ অপসারণ করতে সহায়তা করে। বাদাম, চিনাবাদাম, সূর্যমুখী বীজ, পালং শাক এবং ব্রোকলির মতো খাবার ভিটামিন ই এর ভাল উৎস।

সবুজ শাক:

সবুজ শাক খাওয়া রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে ত্বককে উন্নত করে। পালং শাক এবং ব্রোকলির মতো সবুজ শাক ভিটামিন কে সমৃদ্ধ যা বর্ণহীনতা এবং শিথিলতা হ্রাস করে রক্ত সঞ্চালনকে প্রসারিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কমলা:

কমলা ভিটামিন সি এবং এ সমৃদ্ধ,দুইটাই কোলাজেন বাড়াতে এবং ত্বক থেকে ফ্রি র‌্যাডিকেলগুলি সরিয়ে নিতে সহায়তা করে।

বিটরুট:

বিটরুটের লাল রঙে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা শরীরকে ডিটক্সাইফাই করতে সহায়তা করে এবং চোখের স্বাস্থ্যের জন্য ভাল। এ ছাড়া বিটরুট ডায়লেট, ম্যাগনেসিয়াম এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ যা দাগ দূর করতে সহায়তা করে।

পেঁপে:

পেঁপে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ যা ডার্ক সার্কেল থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করে এবং এটি ত্বকের জন্য অ্যান্টি-এজিং সুবিধাগুলিও রাখে। এতে ম্যাগনেসিয়াম এবং ভিটামিন সিও রয়েছে। পেঁপে প্রাকৃতিক ব্লিচিং হিসেবে কাজ করে।

পানি:

পানি খাওয়া চোখের নীচে অন্ধকার বৃত্ত এবং ফোলাভাব কমায়। পানি শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলি বের করতে সহায়তা করে এবং চোখের নিচের লবণের ঘনত্বকে হ্রাস করে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা