kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

দেশ টিভির নতুন ধারাবাহিক আবির্ভাব

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশ টিভির নতুন ধারাবাহিক আবির্ভাব

এক মধ্যবিত্ত পরিবারের মা-বাবার আদরের দুলালী নাজমা। মেয়ের সুখী সুন্দর ভবিষ্যত গড়ার চিন্তায় বাবা প্রতিনিয়ত চিন্তিত। বাবা প্রচলিত সমাজ কাঠামোয় পরিবারের ওপর কঠোর নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে কঠোর। মেয়েকে ধনাঢ্য প্রতিষ্ঠিত পাত্রে বিবাহ দেয়ার চিন্তায় এক বিত্তশালী পরিবারের খোঁজ পেয়ে বাবা নাজমাকে সেই পাত্রে পাত্রস্থ করার সিদ্ধান্তে অটল থেকে অবিরত চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকেন। নাজমার স্বপ্ন উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে ব্যারিস্টার ডিগ্রি অর্জন করে জীবনে প্রতিষ্ঠা লাভ করা। কিন্তু বাবার এমন স্বপ্ন বিনষ্টকারী সিদ্ধান্তে নাজমা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে। যেহেতু পিতৃতান্ত্রিক সমাজ সেহেতু নাজমা পরাজয় বরণ করতে বাধ্য হয়। নাজমার হবু বরের পরিবার ধনাঢ্য এবং সামাজিকভাবে প্রতিষ্ঠিত।

নাজমার হবু শশুর বৌয়ের নিয়ন্ত্রণে আত্মসমর্পনকারী এক গোবেচারা স্বামী। হবু স্বামী নয়ন মায়ের কঠোর নিয়ন্ত্রণে বেড়ে ওঠা এক মা নির্ভর তরুণ। নয়নের মা এক কঠোর মনোভাবাপন্ন নারী। গোটা পরিবার তার কঠোর নিয়ন্ত্রণে। পারিবারিক ব্যবসা এবং সুনাম রক্ষার্থে তিনি নিজের ম্যানেজার শারাফতকে নিয়ে যেকোন সিন্ধান্ত নিতে পিছপা হন না। দীর্ঘ বিরোধীতার পর নাজমা নিজ পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে এবং বিয়ের পরেও সে নিজের জীবন গঠনে পড়াশোনা চালিয়ে যাবে এই শর্তে বিয়েতে সম্মত হয়।

বিয়ের দিনগুলো যেন ঘোরের মধ্যেই কেটে যায় নাজমার। দজ্জাল শাশুড়িকে মানিয়ে চলার সংগ্রাম নিয়ে শুরু হয় নাজমার নতুন জীবন।

এতে অভিনয় করেছেন, মৌসুমী হামিদ, এফ এস নাঈম, দিলারা জামান, সোহেল খান, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, রীনা খান, রহমত আলী, ফারুক আহমেদ, শিল্পী সরকার অপু, নাফিজা চৌধুরী নাফা, শাহরিয়ার সজীব, আফরোজা হোসেন, মিলি বাশার ও আরো অনেকে।

সজল আহমেদের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন জয়ন্ত রোজারিও। প্রচারিত হবে দেশটিভিতে প্রতি বুধবার রাত ৭ টা ৪৫ টা মিনিটে।  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা