kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

চালকসহ আটক ২

যৌন হয়রানির পর চলন্ত সিএনজি থেকে ফেলে দেওয়া হলো তরুণীকে

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

১২ মে, ২০২১ ১৮:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌন হয়রানির পর চলন্ত সিএনজি থেকে ফেলে দেওয়া হলো তরুণীকে

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ঈদের কেনাকাটা শেষে বাড়িতে ফেরার পথে সিএনজি অটোরিকশায় এক তরুণীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ওই সময় তার চিৎকারে সিএনজি থেকে তরুণীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে বখাটেরা। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে সিএনজিচালক কাওসার আহমদ (২৪) ও তার সহযোগী সিএনজি চালক জায়েদ আহমদ (২৫) দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। সঙ্গে থাকা আরেক সহযোগী বেলাল আহমদ পলাতক।

আহত তরুণী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন। তরুণীর বাবা বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্বে মঙ্গলবার রাতে  কমলগঞ্জ থানায় শ্লীলতাহানি ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা করেছেন। আটক দুইজনকে রিমান্ডে আনার জন্য বুধবার দুপুরে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার সন্ধ্যায় আদমপুর ইউনিয়নের ঘোরামারা নামক এলাকায়।

মামলা সূত্র জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় আদমপুর বাজার থেকে ঈদের কেনাকাটা শেষে বাড়ি ফেরার জন্য একটি অটোরিকশায় সিএনজিতে ওঠেন তরুণী। তখন সিএনজিতে বসা আরো দুজন যাত্রী ছিলেন। কিছু দূর আসার পর ওই দুই যাত্রী নেশাগ্রস্ত অবস্থায় আছে বুঝতে পারলে তরুণী সিএনজিচালককে তাকে নামিয়ে দিতে বলেন। কিন্তু অটোরিকশা না থামিয়ে তাকে সিটে বসা যাত্রী বেশে বখাটে দুজন যৌন হয়রানির চেষ্টা করলে মেয়েটি চিৎকার শুরু করে। তখন তাকে চলন্ত সিএনজি থেকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার পাশে ফেলে দিয়ে চলে যায়।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সৌমিত্র সিংহ জানান, তরুণীর মাথা, চোখ ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখমের চিহ্ন রয়েছে।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস জানান, ঘটনার সাথে জড়িত অটোরিকশার চালক কাওসার ও তার সহযোগী জাহেদকে আটক করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের রিমান্ডের আবেদন করে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। পলাতক আরেকজনকে ধরতে অভিযান চলছে।



সাতদিনের সেরা