kalerkantho

সোমবার । ৩ কার্তিক ১৪২৭। ১৯ অক্টোবর ২০২০। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দিনদুপুরে ৫ কার্টন মোবাইল ফোনসেট ছিনতাই, জামালপুরে

জামালপুর প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২০ ১৫:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিনদুপুরে ৫ কার্টন মোবাইল ফোনসেট ছিনতাই, জামালপুরে

জামালপুরে দিনদুপুরে প্রকাশ্য রাস্তায় অভিনব কায়দায় রিকশা থেকে একটি মোবাইল ফোনসেট কম্পানির পাঁচ কার্টনভর্তি ৫২টি অ্যানড্রয়েড মোবাইল ফোনসেট ছিনতাই হয়েছে। খোয়া যাওয়া ফোনসেটগুলোর আনুমানিক মূল্য প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জামালপুর শহরের ব্যস্ততম মেডিক্যাল রোডের নিরালা মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জামালপুর শহরের স্টেশন রোডের পরিবেশক মো. রফিকুজ্জামানের ব্যবস্থাপক শান্ত পাল রিকশাযোগে পাঁচ কার্টনে ভরা দুটি মডেলের ৫২টি মোবাইল ফোনসেট নিয়ে মার্কেটের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে শহরের মেডিক্যাল রোডে নিরালা মার্কেটের সামনে একজন অজ্ঞাতপরিচয় দুর্বৃত্ত আকস্মিক রিকশাটির সামনে গিয়ে শান্ত পালের সাথে তর্ক শুরু করে দেয়। একপর্যায়ে ওই দুর্বৃত্ত শান্ত পালকে রিকশা থেকে নামতে বলায় তিনি রিকশা থেকে নামামাত্রই ওই দুর্বৃত্ত রিকশায় উঠে রিকশাচালককে সামনের দিকে যেতে বলে।

এ ঘটনায় হতভম্ব হয়ে শান্ত পাল রিকশার পিছু নেন। ততক্ষণে রিকশাসহ ওই দুর্বৃত্ত দ্রুত সেখান থেকে লাপাত্তা হয়ে যায়। স্থানীয় কয়েকটি মোড়ে ওই রিকশাটি খুঁজে না পেয়ে বিষয়টি তার পরিবেকশককে জানান তিনি। পরে ফোনসেট ছিনতাই হওয়ার ঘটনাটি তারা সদর থানার ওসিকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

ওই কম্পানির পরিবেশকের ব্যবস্থাপক শান্ত পাল কালের কণ্ঠকে বলেন, তখন সময় আনুমানিক ১২টা। নিরালা মার্কেটের সামনে আকস্মিক একজন লোক রিকশার কাছে এসে অকারণেই আমার সাথে তর্ক শুরু করে দেয়। আমাকে নামতেও বলে রিকশা থেকে। রিকশা থেকে নামামাত্রই ওই লোক রিকশায় উঠে আমার সাথে থাকা পাঁচ কার্টন ফোনসেটসহ রিকশা নিয়ে পালিয়ে যায়। দুটি পৃথক মডেলের ৫২টি ফোনসেটের আনুমানিক মূল্য হবে প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা। ফোনসেট ছিনতাইয়ের ঘটনাটি সদর থানায় অবহিত করা হয়েছে।    

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালেমুজ্জামান কালের কণ্ঠকে বলেন, ফোনসেট নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনাটি শোনার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। দিনের বেলা প্রকাশ্য রাস্তায় এ ধরনের ঘটনাটিকে রহস্যজনক বলে মনে হচ্ছে। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা