kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রোহিঙ্গা শিবিরে চরম নৃশংসতা

মৌলভি জবাই করল আরেক মৌলভিকে

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৌলভি জবাই করল আরেক মৌলভিকে

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রকাশ্য দিবালোকে এক রোহিঙ্গা মৌলভিকে নৃশংসভাবে জবাই করে হত্যা করেছে আরেক রোহিঙ্গা মৌলভি। 

আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে দিনদুপুরে পৈশাচিক হত্যার ঘটনাটি ঘটেছে কুতুপালং লম্বাশিয়া এলাকার ১ নম্বর ক্যাম্পে । হত্যার শিকার হওয়া মৌলভি ও হত্যাকারী মৌলভি দুই জনই রোহিঙ্গা উগ্রপন্থী আল ইয়াকিন দলের সদস্য বলে জানা গেছে।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবুল মনসুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, হত্যাকারী রোহিঙ্গা মৌলভী ফয়সালকে (২৭) তাৎক্ষণিক আটক করা হয়েছে। আটক ফয়সাল হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

জানা গেছে, রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আল ইয়াকিন নামের উগ্রপন্থী সন্ত্রাসী দলের সক্রিয় সদস্য হিসাবে নিহত রোহিঙ্গা মৌলভি মোহাম্মদ ইউনুছ (২৫) ও মৌলভী মোহাম্মদ ফয়সালের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। দুই জনই ক্যাম্পের সি ব্লকের বাসিন্দা। 

অভিযোগ রয়েছে, ক্যাম্পের সাধারণ রোহিঙ্গারা দেশে ফিরে যেতে ইচ্ছুক হলেও আল ইয়াকিন নামের উগ্রপন্থী এসব সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা ভয়ভীতি দেখিয়ে রোহিঙ্গাদের স্বদেশ ফিরতে বাঁধা প্রদান করে আসছে।

নিহত রোহিঙ্গা মৌলভী মোহাম্মদ ইউনুসের সাথে রোহিঙ্গা মৌলভি মোহাম্মদ ফয়সালের বোনের কিছুদিন আগে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিভিন্ন সামাজিক এবং পারিবারিক কারণে বিয়ে আর হয়নি। 

নিহত রোহিঙ্গা মৌলভি ইউনুস আজ সকালের দিকে হত্যাকারি রোহিঙ্গা মৌলভি ফয়সালের বস্তির পার্শ্ববর্তী চা দোকানে যায়। এ সময় মৌলভি ফয়সাল নিহত মৌলভি ইউনুসকে চা দোকানে দেখতে পেয়ে এখানে কেন এসেছিস বলে ধমকের সুরে জানতে চায়।

এ সময় বোনের সাথে বিয়ে না করার ঘটনা নিয়ে দু’জনের মধ্যে প্রচণ্ড তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে রোহিঙ্গা মৌলভি ফয়সাল তার কোমরে থাকা একটি ছুরি বের করে মৌলভি ইউনুসের বুকে ঘাই মেরে দেয়। এতে ইউনুস মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তারপর মৌলভি ফয়সাল সেই ছুরি নিয়ে মৌলভী ইউনুসকে নৃশংসভাবে জবাই করে হত্যা করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে তাকে পুলিশ আটক করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা