kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

কেমন বাজেট চাই, বিশেষজ্ঞদের নিয়ে আজ কালের কণ্ঠে গোলটেবিল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ মে, ২০১৯ ০৮:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কেমন বাজেট চাই, বিশেষজ্ঞদের নিয়ে আজ কালের কণ্ঠে গোলটেবিল

জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপিত হতে যাচ্ছে। টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম বাজেট হবে এটি। আগের মেয়াদে পরিকল্পনামন্ত্রী থেকে এবার অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর আ হ ম মুস্তফা কামালের জন্যও এটি প্রথম বাজেট। বহুল আলোচিত মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আইন কার্যকর হচ্ছে আগামী ১ জুলাই থেকে। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বছর। এসব দিক বিবেচনায় ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই আসছে বাজেটের গুরুত্ব অনুধাবন করে ‘কেমন বাজেট চাই’ শিরোনামে এক গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠ।

রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় কালের কণ্ঠ কার্যালয়ে আজ শনিবার বিকেল ৩টায় এ গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। এ ছাড়া উপস্থিত থাকবেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম, পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ, সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ, বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক, সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মুর্শেদী, সেলিমা আহমাদ, কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান ও এলপিজি অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি আজম জে চৌধুরী উপস্থিত থাকবেন বৈঠকে। একই সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী আমিনুল ইসলাম, সরকারি-বেসরকারি অংশীদারি (পিপিপি) কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলকামা সিদ্দিকী। এ ছাড়া বেশ কয়েকজন অর্থনীতিবিদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

গোলটেবিল বৈঠকটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোর।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামী অর্থবছরের সম্ভাব্য বাজেটের আকার হতে যাচ্ছে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হচ্ছে তিন লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপির) আকার হতে যাচ্ছে দুই লাখ দুই হাজার ৭২১ কোটি টাকা। আসছে অর্থবছরে ৮ শতাংশের ওপর জিডিপির প্রবৃদ্ধি অর্জনের এবং মূল্যস্ফীতির হার সাড়ে ৫ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হতে পারে। কর্মকর্তারা বলছেন, ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনে বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থান বাড়াতে নির্দেশনা থাকবে বাজেটে।

বৈঠকে ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, গবেষণা সংস্থার প্রতিনিধি, ভোক্তা প্রতিনিধি, পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞসহ বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধিরা ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা করতে পারেন। এ ছাড়া কর্মসংস্থান, বিনিয়োগ, প্রবৃদ্ধি, মূল্যস্ফীতি, ব্যবসা পরিবেশ, পিপিপি নিয়েও আলোচনা হতে পারে। এডিপি বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে কম বরাদ্দ, পুুঁজিবাজারের অস্থিরতা, ব্যাংক খাতে সুদের হার এক অঙ্কের ঘরে নামিয়ে আনা এবং খেলাপি ঋণ নিয়েও আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। বৈঠকে বিভিন্ন খাতের সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা করবেন বিশেষজ্ঞরা। ভ্যাট আইন নিয়ে ব্যবসায়ীরা তাঁদের ভাবনার কথা জানাবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা