kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

ধারাবাহিক মূল্যায়ন পদ্ধতি

১৭ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধারাবাহিক মূল্যায়ন পদ্ধতি

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জেএসসি পরীক্ষায় কৃষিশিক্ষা, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, আরবি, সংস্কৃত ও পালি বিষয়সমূহ অন্তর্ভুক্ত না করে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে বুদ্ধিবৃত্তিক, মনোপেশিজ ও আবেগীয় ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর মান যাচাই করা হবে। কৃষিশিক্ষা ও গার্হস্থ্য বিজ্ঞান বিষয়ে কিভাবে মূল্যায়ন করা হবে তার বিস্তারিত এখানে দেওয়া হলো—

 

কৃষিশিক্ষা

পূর্ণমান-১০০

(তত্ত্বীয় : ৬০, ব্যাবহারিক : ৪০)

 

তত্ত্বীয় অংশ-৬০

* শ্রেণি অভীক্ষা : ৪০

* বাড়ির কাজ : ২০

* কমপক্ষে ৬টি শ্রেণি অভীক্ষা নিতে হবে। সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ৪টি বিবেচনা করতে হবে।

* প্রতিটি শ্রেণি অভীক্ষা ১০ নম্বরের হবে।

* শিক্ষা বছরে কমপক্ষে ৪টি বাড়ির কাজ মূল্যায়ন করতে হবে। সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ২টি কাজের নম্বর বিবেচনা করতে হবে।

 

ব্যাবহারিক অংশ-৪০

* শ্রেণির কাজ : ৪০

(কৃষি-প্রযুক্তির ব্যবহার, বীজ নির্বাচন ও সংরক্ষণ, কৃষিজাত দ্রব্যাদি সংগ্রহ, বীজ বপনের উপযোগী মাটি প্রস্তুতকরণ, কৃষিজাত দ্রব্যাদি সংগ্রহ ও বাছাই, পলিব্যাগে চারা তৈরি ও বনায়নের নকশা তৈরি)

* শিক্ষা বছরে কমপক্ষে ৬টি ব্যাবহারিক কাজ সম্পাদন করতে হবে।

* সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ৪টি ব্যাবহারিক কাজের নম্বর বিবেচনা করতে হবে।

* প্রতিটি ব্যাবহারিক কাজ ১০ নম্বরের হবে।

 

গার্হস্থ্য বিজ্ঞান

পূর্ণমান-১০০

(তত্ত্বীয় : ৬০, ব্যাবহারিক : ৪০)

 

তত্ত্বীয় অংশ-৬০

* শ্রেণি অভীক্ষা : ৪০

* বাড়ির কাজ : ২০

* কমপক্ষে ৬টি শ্রেণি অভীক্ষা নিতে হবে। সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ৪টি বিবেচনা করতে হবে। প্রতিটি শ্রেণি অভীক্ষা ১০ নম্বরের হবে।

* শিক্ষা বছরে কমপক্ষে ৪টি বাড়ির কাজ মূল্যায়ন করতে হবে। সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ২টি কাজের নম্বর বিবেচনা করতে হবে।

 

ব্যাবহারিক অংশ-৪০

* শ্রেণির কাজ : ৪০

* শিক্ষা বছরে কমপক্ষে ৬টি করে ব্যাবহারিক কাজ সম্পাদন করতে হবে।

* সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ৪টি ব্যাবহারিক কাজের নম্বর বিবেচনা করতে হবে।

* প্রতিটি ব্যাবহারিক কাজ ১০ নম্বরের হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা