kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

উত্তরপ্রদেশে দলিত তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, কেটে ফেলেছে জিহ্বা

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১২:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উত্তরপ্রদেশে দলিত তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, কেটে ফেলেছে জিহ্বা

প্রতীকী ছবি

ভারতের উত্তরপ্রদেশে দিনেদুপুরে এক তরুণীকে টেনে হিঁচড়ে তুলে নিয়ে গিয়ে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এমনকি ওই তরুণীর জিহ্বা কেটে নেওয়া হয়েছে। 

ভুক্তভোগী নারী এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। অভিযুক্ত চার ধর্ষকের অত্যাচারে গোটা শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়ে গেছে তার। শরীরের বেশ কয়েকটি হাড় ভেঙে গেছে। 

অথচ, এ ধরনের নৃশংসতার পরেও পুলিশ চার-পাঁচ দিন চুপ ছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে স্থানীয়দের বিক্ষোভের জেরে তারা ব্যবস্থা নিয়েছে। চারজন অভিযুক্তকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লি থেকে দু'শ কিলোমিটার দূরে হাথরাস জেলায়। নির্যাতিতার ভাইয়ের দাবি, মূল ঘটনাটি ১৪ সেপ্টেম্বরের। সেদিন মা এবং ভাইয়ের সঙ্গে মাঠে ফসল কাটতে গিয়েছিলেন ভুক্তভোগী তরুণী। কিছুক্ষণ পর ফসলের বোঝা মাথায় নিয়ে বাড়ি ফিরে যান নির্যাতিতার ভাই। তখনো মা-মেয়ে জমিতে ছিলেন।

দুজন দু’প্রান্তে ফসল কাটছিলেন। হঠাৎ করে চার-পাঁচ জন দুষ্কৃতিকারী আসে। তারা তরুণীর গলায় তারই ওড়না পেঁচিয়ে দেয়। তারপর টেনে হিঁচড়ে তাকে সেখান থেকে নিয়ে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর মেয়েকে দেখতে না পেয়ে সন্ধান করা শুরু করেন মা। পরে কিছু দূরে মেয়েকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। সেখানকার এক সরকারি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা