kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

১৬ বছর বয়সীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আজ

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ আগস্ট, ২০২১ ১০:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



১৬ বছর বয়সীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আজ

১৬ বছর বয়সী নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেওয়ার বিষয়ে ‘কমিশন বৈঠকে’ বসছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সোমবার (২৩ আগস্ট) বেলা ১১টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সভাপতিত্বে আগারগাঁওয়ে ইসির সভাকক্ষে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।

এ সভা থেকেই ১৬ বছর বয়সীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসতে পারে। বৈঠকের এজেন্ডায় ১ জানুয়ারি ২০০৬ সাল বা তার আগে জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশি নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহকরণের বিষয়টি রয়েছে।

ইসির সংশ্লিষ্টরা জানান, ১৬ বছর বয়সীদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেওয়ার লক্ষ্যে তথ্য নিতে চায় ইসি। আজকের সভায় এ এজেন্ডা অনুমোদন হলে ১৬ বছরের যে কেউ সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে নতুন ভোটারের জন্য আবেদন করতে পারবে। পাশাপাশি অনলাইনেও নতুন ভোটারের জন্য নিবন্ধিত হওয়া যাবে। এরপর বায়োমেট্রিক শেষ হলেই নাগরিকদের এনআইডি দেওয়া হবে।

এর আগে, করোনার টিকাদান কর্মসূচি নির্বিঘ্ন রাখার অংশ হিসেবে ইসি নাগরিকদের এনআইডি দেওয়ার আওতা বাড়িয়েছে। সরাসরির পাশাপাশি অনলাইন সেবার পরিধিও বাড়িয়েছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি। এরই ধারাবাহিকতায় বিদ্যমান ১৮ বছরের স্থলে বয়স ২ বছর কমিয়ে ১৬ বছর বয়সীদের এনআইডি দেওয়ার উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে ইসি।

ইসি জানায়, নির্বাচন কমিশন সর্বশেষ ২০১৯ সালে নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করেছিল। ওই সময় ভোটার হওয়ার উপযোগী (১৮ বছর) নাগরিকের পাশাপাশি ১৬ বছর বয়সীদের (১ জানুয়ারি ২০০৪ বা তার আগে জন্মগ্রহণকারী) আগাম তথ্যও সংগ্রহ করেছিল ইসি। ২০১৯ সালে সংগৃহীত তথ্য থেকে ২০২০ সালে ৬৭ লাখ ৫৮ হাজার ৮২৫ জন এবং ২০২১ সালে ১৪ লাখ ৬৫ হাজার ৪৬ জন নাগরিকের তথ্য চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। 

জানা গেছে, নির্বাচন কমিশন ২০০৪ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে জন্মগ্রহণকারী নাগরিকদের নিবন্ধন কার্যক্রমের জন্য ২ মাসব্যাপী তথ্য সংগ্রহ করতে চায়। এক্ষেত্রে তারা সম্ভাব্য সময় হিসেবে আগামী নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসকে বিবেচনায় রেখেছে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী তারা আগের মতো বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবে না। যার কারণে তাদের তথ্য সংগ্রহকারী ও সুপারভাইজার নিয়োগের দরকার পড়বে না। নাগরিকরা উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে উপস্থিত হয়ে নিবন্ধিত হবেন। অনলাইন/অফলাইনে আবেদন করতে পারবেন। নিবন্ধিত নাগরিক এসএমএস এর মাধ্যমে পাওয়া সময়সূচি অনুযায়ী বায়োমেট্রিক (ছবি, আঙুলের ছাপ ও চোখের মনির প্রতিচ্ছবি) তথ্য দেবেন। নিবন্ধিত সব নাগরিককে বায়োমেট্রিক ম্যাচিং হলে জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হবে।

গত বছর (২০২০ সাল) নভেম্বরে আইডেন্টিফিকেশন সিস্টেম ফর এনহ্যান্সিং অ্যাকসেস টু সার্ভিসেস (আইডিইএ) প্রকল্প (দ্বিতীয় পর্যায়) অনুমোদন দেয় একনেক। ওই প্রকল্পে ১০ বছর তা তদূর্ধ্ব নাগরিকদের এনআইডি দেওয়ার কথা রয়েছে।



সাতদিনের সেরা