kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

চলে গেলেন কত্থক নৃত্যের মহীরুহ বিরজু মহারাজ

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০৯:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চলে গেলেন কত্থক নৃত্যের মহীরুহ বিরজু মহারাজ

ভারতের কত্থক নৃত্যের কিংবদন্তিপ্রতিম শিল্পী বিরজু মহারাজ আর নেই। রবিবার (১৬ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৩।

নাচ, তবলা বাদন ও কণ্ঠসংগীতে সমান দক্ষতা ছিল বিরজু মহারাজের।

বিজ্ঞাপন

ছবিও আঁকতেন তিনি। সেতারসম্রাট পণ্ডিত রবিশঙ্কর তাঁর নাচ দেখে বলেছিলেন, ‘তুমি তো লয়ের পুতুল'।  

গতকাল রাতে নাতির সঙ্গে খেলার সময় হঠাৎ করে অসুস্থ বোধ করেন বিরজু। তখনই তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চলে যান এ গুণী শিল্পী।  

সম্প্রতি বিরজু মহারাজের কিডনির অসুখ ধরা পড়েছিল। এ জন্য তাকে ডায়ালিসিস করাতে হতো। সাত পুরুষ ধরে বিরজু মহারাজের পরিবারে কত্থক নাচের চর্চা। তাঁর দুই কাকা শম্ভু মহারাজ এবং লাচ্ছু মহারাজ ছিলেন বিখ্যাত শিল্পী। তবে গুরু ছিলেন বাবা অচ্চন মহারাজ।

শাস্ত্রীয় সংগীতের একাধিক ধারার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বিরজু মহারাজ। বেশ কিছুসংখ্যক চলচ্চিত্রে  কোরিওগ্রাফারের দায়িত্ব পালন করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সত্তর দশকে সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কি খিলাড়ি’।

মাত্র ১৪ বছর বয়সে ১৯৫২ সালে কলকাতায় জীবনের প্রথম মঞ্চে নিজের শৈলী উপস্থাপন করেন। বাবা হারা কিশোর বিরজুর জীবনসংগ্রাম শুরু হয়ে গিয়েছিল তখনই। কাকাদের কাছে শিল্পের তালিম নিতে থাকেন। ধীরে ধীরে সমৃদ্ধ হন, কত্থক নাচে নিজের জায়গা করে নেন।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।



সাতদিনের সেরা