kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

প্লাটুন কমান্ডারের মৃত্যুবার্ষিকী পালনের নামে এমপির ঠাট্টা!

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:৫৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্লাটুন কমান্ডারের মৃত্যুবার্ষিকী পালনের নামে এমপির ঠাট্টা!

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের তুফানি বাহিনীর প্লাটুন কমান্ডার ঈশ্বরদী আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রয়াত আব্দুর রহিম মালিথার ২৪তম মৃত্যুবার্ষিকী পালনের নামে স্থানীয় এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস ঠাট্টা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। যা ঈশ্বরদীর ইতিহাসে স্মরণকালের শ্রেষ্ঠ অবজ্ঞা ও ঠাট্টা বলে মন্তব্য করেছেন প্রয়াতের ছোট ভাই ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র ইছাহক আলী মালিথা।

আজ বুধবার বিকেলে ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। আর এই মাহফিল নিয়ে উপজেলা, পৌর ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদরে মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দোয়া মাহফিলে টাঙানো ব্যানারে আয়োজকদের নাম নেই। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্থানীয় এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাস, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) নায়েব আলী বিশ্বাস, সাবেক মেয়র পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিন্টু বক্তব্য দেন।

প্রয়াত আব্দুর রহিম মালিথার ছোট ভাই পৌরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা বলেন, এর আগে কখনোই তাঁর মৃত্যুবার্ষিকীতে কেউ স্মরণসভা বা দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেনি। পারিবারিকভাবে আমিই বাড়িতে দোয়া মাহফিল করেছি। সেই দোয়া মাহফিলের দিনে পৌরসভার সাবেক মেয়র পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিন্টুর নেতৃত্বে তৎকালীন যুবলীগ সভাপতি বর্তমানে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খান ও ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাস আনন্দ মিছিল করে বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছিল। যার স্মৃতিগুলো এখনও বাড়িঘরগুলো বহন করছে। এমনকি দোয়া উপলক্ষ্যে ইফতার মাহফিলেও এই চক্রটিই দলীয়সহ সর্বসাধারণকে আসতে দিত না। কঠোর বাঁধার সৃষ্টি করেছে। আমাদের অপমান করেছে।

মেয়র আরো বলেন, সেই মিন্টু, সালাম ও জুবায়েরদের নিয়েই এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাস বংশের কিছু বিশ্বাসঘাতকদের নিয়ে আমার ভাই রহিম মালিথার জন্য দোয়া মাহফিলের নামে ঠাট্টা করেছে। এটা আমাদের জন্য খুবই ঘৃণার ও কষ্টের।

মেয়র ইছাহক আলী মালিথা আরো বলেন, সামনে দলীয় সম্মেলনকে কেন্দ্র করে এমপি সাহেব ষড়যন্ত্রমূলক ও অসৎ উদ্দেশ্যে আমার মৃত ভাইকে নিয়ে অপরাজনীতি শুরু করেছেন। এই হীন মানুষিকতার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদও জানান মেয়র।

উল্লেখ্য, ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও ৭১ মহান মুক্তিযুদ্ধের তুফানী বাহিনীর প্লাটুন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিম মালিথা ১৯৯৭ সালে রোগাক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।



সাতদিনের সেরা