kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

হেফাজতের জরুরি সভা: রিসোর্টকাণ্ড মামুনুলের ব্যক্তিগত

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি    

১২ এপ্রিল, ২০২১ ০৩:০১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হেফাজতের জরুরি সভা: রিসোর্টকাণ্ড মামুনুলের ব্যক্তিগত

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় রিসোর্টে অবরুদ্ধ হওয়া এবং তাঁর দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে ব্যাপকভাবে বিতর্ক চললেও সংগঠনের নেতারা বিষয়টি এড়িয়ে গেলেন। গতকাল রবিবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতাদের বিশেষ জরুরি সভায় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হলেও মামুনুলের রিসোর্টকাণ্ড নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বরাবরের মতো নেতারা বলছেন, এটি মামুনুলের ব্যক্তিগত বিয়য়।

হেফাজত নেতারা বলেছেন, করোনার লকডাউনের মধ্যেও রমজানে কওমি মাদরাসাগুলো খোলা রাখতে হবে। সভা থেকে আগামী ২৯ মে হাটহাজারীতে জাতীয় উলামা-মাশায়েখ সম্মেলনের কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়।

গতকাল সকালে দারুল উলুম হাটহাজারী মিলনায়তনে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকটি চলে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের আমির ও হাটহাজারী মাদরাসার শিক্ষা পরিচালক আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, ‘গত ২৬ মার্চ হেফাজতে ইসলামের কোনো কর্মসূচি ছিল না। সেদিন আমি মাদরাসায় ছিলাম না। কিছু মানুষ মিছিল বের করেছে। তারা বলছে, আমরা শান্তিপূর্ণ মিছিল বের করেছি। কিন্তু পুলিশ বাহিনী তাদের ওপর আক্রমণ করে। আহত ও নিহত করে। আমি জানি না তারা কে ছিল। পুলিশ গুলি করেছে তাদের বুকে। পুলিশের দরকার হলে উত্তেজনা কমাতে হাঁটুর নিচে গুলি করবে। আগুন জ্বলে উঠলে আগুন নেভাতে হয়। কিন্তু পুলিশ আগুন বাড়িয়ে দিল। এগুলো কোন আইনে আছে?’ কর্মসূচির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সারা দেশে হেফাজত নেতাকর্মীদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। হামলা-মামলা দিচ্ছে। অবিলম্বে এসব হামলা-মামলা বন্ধ করতে হবে। হয়রানি বন্ধ করতে হবে। করোনার কারণে কওমি মাদরাসা বন্ধ করা যাবে না। সরকারের কাছে আমাদের দাবি হলো যারা শহীদ হয়েছে, তাদের সুনসিব। তাদের বিষয়ে আর বাড়াবাড়ি না করে শান্তির জন্য কাজ করুন। পুলিশ-র‌্যাব প্রতিদিন নিরীহ মানুষকে হয়রানি করছে। এটা আমরা মানি না। এটা বন্ধ করতে হবে। রমজানে সারা দেশের মসজিদগুলো বন্ধ করা যাবে না। রমজানে তারাবি চলবে। ইতিকাফ চলবে। তাফসির দোয়া ইত্যাদি চললে আল্লাহর রহমত বর্ষিত হবে। লকডাউন দিয়ে কওমি মাদরাসা বন্ধ করা যাবে না।’ তিনি আরো বলেন, ‘হেফাজতে ইসলাম আগামী ২৯ মে হাটহাজারীতে জাতীয় উলামা-মাশায়েখ সম্মেলন করবে। সেখানে সারা দেশের পীর-মাশায়েখ ও হেফাজতের সঙ্গে সম্পর্ক রাখেন, এমন আলেম-উলামা উপস্থিত থাকবেন ইনশাআল্লাহ।’

এদিকে জরুরি এই সভায় আলোচিত হেফাজত নেতা মামুনুল হকের সাম্প্রতিক ঘটনাবলি নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানা গেছে। আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটা তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়।’

হেফাজতের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ও মেখল হামিউসসুন্নাহ মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘মামুনুল হক সাহেবের বিষয়টি ব্যক্তিগত, আলোচিত ঘটনার ওই নারী মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে স্বয়ং মামুনুল হক ব্যাখ্যা দিয়েছেন। মামুনুলকে বহিষ্কারের কোনো প্রশ্নই আসে না।’



সাতদিনের সেরা