kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ মাঘ ১৪২৮। ২৫ জানুয়ারি ২০২২। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

যাত্রা শুরু গার্মেন্টস পণ্য কেনাবেচার প্ল্যাটফর্ম ‘ফেব্রিক লাগবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ জানুয়ারি, ২০২২ ১৮:৪৭ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



যাত্রা শুরু গার্মেন্টস পণ্য কেনাবেচার প্ল্যাটফর্ম ‘ফেব্রিক লাগবে’

যাত্রা শুরু করেছে টেক্সটাইল ও রেডিমেড গার্মেন্ট কারখানায় ব্যবহৃত যাবতীয় পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ে প্রথম ও একমাত্র ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম মোবাইল অ্যাপ ‘ফেব্রিক লাগবে’। কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই ক্রেতারা এই প্ল্যাটফর্মে ন্যায্য মূল্যে কাপড়, সুতা এবং আনুষঙ্গিক পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধা পাবেন। এটি আরএমজি, টেক্সটাইল, সুতা, তুলা, ট্রিমস এবং আনুষঙ্গিক, সাইজিং, ডাইং প্রসেসিং, রাসায়নিক, যন্ত্রপাতি, বাণিজ্য, সরবরাহ, কারখানায় প্রয়োজনীয় কাজের অর্ডার এবং কর্মচারী নিয়োগের প্রক্রিয়াকে সহজতর করবে। উদ্যোক্তাদের জন্য এটি সঠিক পণ্য এবং কর্মশক্তি খুঁজে পেতে সহায়ক হবে।

বিজ্ঞাপন

এর মাধ্যমে পণ্য বিক্রয় সহজ হবে এবং বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগও ঘটবে। পোশাক পণ্য এবং পরিষেবাগুলোর জন্য এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মটি টেক্সটাইল এবং তৈরি পোশাক খাতে ছোট শিল্প এবং বড় শিল্পগুলোর মধ্যে সেতুবন্ধ স্থাপন করবে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইকোনোমিক রিপোর্টার্স ফোরামে (ইআরএফ) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মোবাইল অ্যাপের উদ্বোধন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ‘ফেব্রিক লাগবে’ লিমিটেডের  প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ইঞ্জিনিয়ার মো. নাজমুল ইসলাম, প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান রাজিয়া সুলতানা, আইটি ডিপার্টমেন্টের প্রধান রাকিব প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের এমডি ইঞ্জিনিয়ার মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘১০ বছর ধরে টেক্সটাইল এবং রেডিমেড গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে কাজ করছি। দেখা গেছে, সুতা ক্রয় করা থেকে শুরু করে সাইজিং, মেশিনের সাহায্যে উইভিং, কাপড় বানিয়ে ডাইং ফিনিশিং, গার্মেন্ট ডেলিভারি করতে গিয়ে যেসব বাধা, সমস্যা, পণ্যের উৎসের খোঁজ, যোগাযোগ, পণ্যের অর্ডার নেওয়া, পণ্য উৎপাদন করা এবং বিক্রি করতে গিয়ে বহু সমস্যার মুখে পড়তে হয়। এই সমস্ত সমস্যাকে চিহ্নিত করে পণ্য খুঁজে পেতে সহায়তা করবে এই অ্যাপ। ’

তিনি বলেন, ‘ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে দর-কষাকাষির সুযোগ রাখা হয়েছে এই অ্যাপে। কোনো ক্রেতা একটি পণ্য কিনতে কত টাকা দিতে চান সেটি বলার সুযোগ আছে এতে। এ ছাড়া অ্যাপে দর-কষাকষির মাধ্যমে একটি যৌক্তিক দামে লেনদনে সম্পন্ন করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ’

এ ধরনের অ্যাপে ক্রেতা-বিক্রেতা সমস্যার সম্মুখীন হলে বা বিক্রেতা যে পণ্য বিক্রি করবেন সেটি না দিলে কোনো তদারকির ব্যবস্থা আছে কি না, এমন প্রশ্নে নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘এখানে পণ্যের লেনদেন সম্পূর্ণ হওয়ার পর রেটিংয়ের ব্যবস্থা আছে। কোনো পক্ষ ক্ষতির সম্মুখীন হলে তিনি পণ্যের নিচে তাঁর মন্তব্য জানাবেন, যাতে পরবর্তীতে অন্য ক্রেতারা সে পণ্যটি কিনতে উৎসাহী বা নিরুৎসাহ হন। ’

লিখিত বক্তব্যে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘এই প্ল্যাটফর্মটি টেক্সটাইল ও তৈরি পোশাক ইন্ডাস্ট্রিজের দুই খাতের সমন্বয়ে বিটুবি (বিজনেস টু বিজনেস) ধরনের, সেখানে বিক্রেতা তাঁর পণ্য (তৈরি পোশাক, কাপড়, সুতা, ট্রিমস অ্যান্ড অ্যাকসেসরিজ, সাইজিং, ডাইং প্রসেসিং, কেমিক্যাল, মেশিনারিজ) সরাসরি ক্রেতার কাছে বিক্রি করতে পারবেন। ’

অন্যদিকে ক্রেতা তাঁর পছন্দের উৎপাদনকারীর কাছ থেকে কোনো ধরনের মধ্যস্বত্বভোগী ছাড়াই সুলভ মূল্যে পণ্য কিনতে পারবেন। এই অ্যাপে উভয় পক্ষের বিড অপশন রাখা হয়েছে।

দীর্ঘ তিন বছরের গবেষণা এবং ১৮ জন বিশেষজ্ঞ ১৪ মাসে প্রতিদিন ১৪ ঘণ্টা পরিশ্রম করে 'ফেব্রিক লাগবে' অ্যাপটি চালু করা হয়েছে। অ্যাপটির ওয়েবসাইট www.fabriclagbe.com
Home - Fabric Lagbe
Fabric Lagbe
www.fabriclagbe.com

এ ছাড়া চাকরি বা শ্রমিক অর্ডার নামেও দুটি অপশন আছে। যেখানে জব অপশনে শিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত বা অশিক্ষিত যে কেউ অবস্থান নির্বিশেষে নিজের বায়োডাটা ও আনুষঙ্গিক তথ্য দিয়ে নিবন্ধিত হতে পারবেন। এতে গার্মেন্ট মালিকরা সহজে তাঁদের প্রয়োজনীয় কর্মী বা শ্রমিক পছন্দ করে ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ দিতে পারবেন। অ্যাপের মাধ্যমে লেনদেনে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানকে ০.৫০ শতাংশ থেকে ১ শতাংশ পর্যন্ত কমিশন দিতে হবে।



সাতদিনের সেরা