kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

গেম

হয়ে যান জাহাজি

মোহাম্মদ তাহমিদ   

১৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হয়ে যান জাহাজি

সাগরে নিজের ছোট পালতোলা জাহাজ নিয়ে ভেসে পড়ার স্বপ্ন ছোটবেলায় প্রায় সবাই দেখেছেন। নির্মাতার লায়ন ওয়ার্কশপের গড়া গেম ‘সেইলউইন্ড’-এ ঠিক সে কাজটাই করা যাবে। যদিও আর্লি অ্যাকসেস বা নির্মাণাধীন অবস্থায় থাকলেও এর মধ্যেই গেমারদের মধ্যে সারা ফেলে দিয়েছে গতানুগতিকের বাইরে থাকা সিমুলেশনভিত্তিক এই গেম।

মূল কাহিনি একেবারে সহজ।

বিজ্ঞাপন

গেমার তার বাছাই করা একটি এলাকায় ছোট একটি নৌকা নিয়ে শুরু করবে খেলা। ফাস্ট পার্সনে খেলতে হবে গেমটি, অনেকটা মাইনক্র্যাফটের মতো। জাহাজ ভেরানো থাকবে জেটিতে, সেখানে রয়েছে বেশ কিছু রসদ বিক্রেতা এবং একজন ডক মাস্টার, যার কাছে পাওয়া যাবে নানা ধরনের জিনিসপত্র এক জায়গা থেকে অন্যত্র পৌঁছে দেওয়ার মিশন। আর মিশন শেষে পাওয়া যাবে গোল্ড। গেমটি অনেকটা সার্ভাইবাল ঘরানার, ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র—যেমন খাবার, পানি, জ্বালানি—এগুলো সব সময় রাখতে হবে মজুদ, নইলে গেমে বেশি দূর এগোনো সম্ভব হবে না। গোল্ড কামানো তাই শুরুতে হয়ে উঠবে প্রধান লক্ষ্য।

নৌকা চালানোর সব কিছু শেখার জন্য দেওয়া আছে একটি বড় ম্যানুয়াল, সেটি না পড়ে গেমটি খেলা হবে মুশকিল। সঠিকভাবে কোন দিক থেকে বাতাস আসছে, সেটার ওপর নির্ভর করে সঠিকভাবে পাল ব্যবহার করে তবেই শুরু করা যাবে যাত্রা। সাগরেও দিক ঠিক করতে হবে ম্যাপ দেখে, কম্পাসের ওপর ভিত্তি করে, এতে নেই কোনো অটো ম্যাপ। যেকোনো সময় পরিবেশ যেতে পারে বদলে, উঠতে পারে ঝড়, পড়ে যেতে পারে বাতাস। সেগুলো মোকাবেলা করাও গেমের বড় চ্যালেঞ্জ।

মাছ ধরা, ঘুরে ঘুরে নতুন এলাকা আবিষ্কার অথবা শুধু সাগরে ভেসে বেড়ানোর অভিজ্ঞতা নেওয়া—সব কিছুই আছে এই গেমে। ধীরে ধীরে গোল্ড জমিয়ে কেনা যাবে নতুন জাহাজ, নিজের জাহাজে করা যাবে নতুন কাস্টমাইজেশন। ভবিষ্যতে আরো অনেক কনটেন্ট এবং এলাকাও যোগ করার কথা রয়েছে এই গেমে।

ব্যবসা এই গেমের অন্যতম বড় মেকানিক। একেক এলাকায় জিনিসের দাম একেক রকম, এক এলাকা থেকে কম দামে জিনিস কিনে সেটা অন্য এলাকায় পৌঁছে বেশি দামে বিক্রি করে গোল্ড রোজগার করা গেমটির বড় লক্ষ্যের একটি। অথবা নতুন এলাকা আবিষ্কার করে সেখান থেকে অত্যাশ্চর্য কিছু এনে চড়া দামে বিক্রিও করা যেতে পারে।

গ্রাফিকসে গেমটির সঙ্গে মিল আছে ‘সি অব থিভস’-এর। অত্যন্ত বাস্তবসম্মত না করে গেমটির নিজস্ব আর্ট স্টাইল ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছেন এটির নির্মাতা। তবে যারা যতটা সম্ভব উচ্চমানের গ্রাফিকস ছাড়া গেম পছন্দ করে না তাদের জন্য নয় এটি।

 

খেলতে যা যা লাগবে

অন্তত ৬৪ বিট উইন্ডোজ ৭, ৮ গিগাবাইট র‌্যাম এবং জিটিএক্স ১০৫০ বা রেডিওন আরএক্স ৪৬০ মানের গ্রাফিকস। আর খালি জায়গা লাগবে ৩ গিগাবাইট।

 

বয়স

গেমটি সবার জন্য।



সাতদিনের সেরা