kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কালের কণ্ঠর প্রতি কৃতজ্ঞতা

সুদীপ কুমার দীপ   

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কালের কণ্ঠর প্রতি কৃতজ্ঞতা

৩ অক্টোবর ‘দৈনিক কালের কণ্ঠ’র ফিচার পাতা ‘রঙের মেলা’য় অভিনেতা সাদেক বাচ্চুকে নিয়ে একটি ফিচার প্রকাশিত হয়। ‘এক গুরু শিষ্য অনেক’ শিরোনামের ফিচারটিতে উঠে আসে বাচ্চুর ক্যারিয়ারের নানা ঘটনা। নব্বইয়ের দশক থেকে শাবনাজ, নাঈম, শাবনূর থেকে শুরু করে আমিন খান, বাপ্পী এমনকি হালের শান্ত খানের অভিনয়ের গুরু তিনি। কিন্তু এত তারকার যিনি গুরু তিনিই কি না পাননি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার! বাচ্চুর সেই আক্ষেপের কথা প্রকাশ করা হয় ফিচারটিতে। সেটি চোখে পড়ে সচিব থেকে শুরু করে বর্তমান পরিচালক, চিত্রগ্রহক, অভিনেতাসহ অনেকের। একের পর এক ফোন পেতে থাকেন বাচ্চু। বলেন, ‘ফিচারটি প্রকাশের দিনই আমাকে এক সচিব ফোন করে হতাশা প্রকাশ করেন। জানান, আমাকে সঠিক মূল্যায়ন করা হয়নি এত দিন।’ বাচ্চু অবশ্য সেই ফোনেই খুশি ছিলেন। কিন্তু কে জানত সত্যিই এ বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার হাতে আসবে! ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ খল অভিনেতা হিসেবে পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন এই অভিনেতা। এই পুরস্কার ‘কালের কণ্ঠ’কেই উৎসর্গ করলেন সাদেক বাচ্চু। মুঠোফোনে তিনি বলেন, “এত দিনের অভিনয় জীবনে আমাকে নিয়ে অনেক সংবাদ প্রকাশ পেয়েছে। কিন্তু যে দিন ‘কালের কণ্ঠ’র ফিচারটি প্রকাশ পায় সেদিন অন্য রকম সাড়া পেয়েছি। আমার মনে হয় এই ফিচারটি শুধু সচিব নন, জুরি বোর্ডেরও নজরে এসেছে। যার কারণে এই প্রাপ্তি। আমার অভিনয় জীবনের সবচেয়ে আনন্দঘন মুহূর্তে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি ‘কালের কণ্ঠ’ পরিবারকে।”

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা