kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

টিআইবির রিপোর্ট মিথ্যা বললেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাভাইরাসের টিকা দেশে আনার ক্ষেত্রে চীনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে। দ্রুতই এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। একই সঙ্গে তিনি সম্প্রতি স্বাস্থ্য খাত নিয়ে টিআিইবির প্রকাশিত রিপোর্টটি মিথ্যা ও ভুল তথ্য সংবলিত উল্লেখ করে বলেন, করোনাকালীন সংকটকালে দেশের স্বাস্থ্য খাত যখন বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত, তখন টিআইবি দেশের স্বাস্থ্য খাতকে নিয়ে একটি অসত্য রিপোর্ট তুলে ধরেছে। টিআইবির রিপোর্টটি আগাগোড়াই ভুল তথ্যে ভরা।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মাহমুদ মনোয়ারের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী জানান, টিআইবি বলেছে দেশে কভিড টেস্টিং সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়নি। অথচ দেশে কভিড টেস্টিং কেন্দ্র মাত্র একটি থেকে এখন ৫১০টি করা হয়েছে। টিআইবি বলেছে হাসপাতালগুলোতে করোনা বেড সংখ্যা বাড়ানো হয়নি, অথচ এখন দেশে করোনা বেড সংখ্যা ১৫ হাজারেরও বেশি। কিছুদিন আগেও ঢাকা নর্থ সিটি করপোরেশন হাসপাতালে প্রায় এক হাজার নতুন কভিড ডেডিকেটেড বেড বৃদ্ধি করা হয়েছে, যেখানে প্রায় সবই সেন্ট্রাল অক্সিজেন সুবিধাপ্রাপ্ত এবং সেখানকার অর্ধেকসংখ্যকেই আইসিইউ সুবিধা রয়েছে। টিআইবি বলেছে দেশে আইসিইউ বেডের সংখ্যা বাড়েনি। অথচ আগে দেশে মাত্র ২০০টির মতো আইসিইউ বেড ছিল। এখন আইসিইউ বেড সংখ্যা এক হাজারেরও বেশি হয়েছে। টিআইবি ভারতের সঙ্গে ভ্যাকসিন ক্রয় চুক্তিতে অস্বচ্ছতার কথা বলেছে, যা মোটেও সত্য নয়। ভারতের সঙ্গে চুক্তি থেকে শুরু করে সব কিছু ছিল স্বচ্ছ পানির মতো পরিষ্কার ও উন্মুক্ত। দেশের সব মানুষই জানে, ভারতের সঙ্গে চুক্তিতে কী কী ছিল এবং কেন ভারত চুক্তির অবশিষ্ট টিকা দিতে পারেনি।



সাতদিনের সেরা