kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

সংক্ষিপ্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশের ১৩ কর্মকর্তা বদলি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশে কর্মরত ১৩ কর্মকর্তাকে একযোগে বদলি করা হয়েছে। বদলীকৃতরা সবাই উপপরিদর্শক (এসআই) পদমর্যাদার। বাংলাদেশ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শকের (ডিআইজি) কার্যালয় থেকে এক আদেশে তাঁদের বদলি করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বদলির ওই আদেশটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এসে পৌঁছায়। ওই আদেশে ১০ জন এসআইকে জনস্বার্থে ও বাকি তিনজন এসআইকে প্রশাসনিক কারণে বদলি করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। বদলি হওয়া ১৩ উপপরিদর্শকের মধ্যে বিউটি রানী দাস, বজলুর রহমান খান, মো. হুমায়ূন কবির, মো. আমির হামজা, এস এম আতিকুজ্জামান ও মো. তোফাজ্জল হোসেনকে রাঙামাটি জেলায়; তপু সাহা ও মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে বান্দরবান জেলায়, মো. মতিউর রহমান ও মো. শাহলম খানকে খাগড়াছড়ি জেলায় জনস্বার্থে বদলির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া প্রশাসনিক কারণ দেখিয়ে এসআই মো. শফিকুল ইসলামকে লক্ষ্মীপুর, মো. মিজানুর রহমানকে চাঁদপুর ও মো. নূরুল আমিনকে নোয়াখালী জেলায় বদলি করা হয়েছে। তাঁদের সবাইকে আগামী ২৯ মের মধ্যে বদলীকৃত কর্মস্থলে যোগদানের জন্য ছাড়পত্র নিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় ৩০ মে থেকে তাঁরা স্ট্যান্ড রিলিজ বা তাৎক্ষণিক অবমুক্ত হিসেবে গণ্য হবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) রইছ উদ্দিন বদলির বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, নিয়মিত বদলির অংশ হিসেবেই তাঁদের বদলি করা হয়েছে। অনেকেরই জেলায় দুই বছর পূর্ণ হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ১০ জনকে জনস্বার্থে ও তিনজনকে প্রশাসনিক কারণে বদলি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর, আশুগঞ্জ ও সরাইলে ব্যাপক তাণ্ডব চালান হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেই শতাধিক সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হয়। নিহত হন অন্তত ১৩ জন। এসব ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন থানায় ৫৬টি মামলা হয়েছে। পুলিশ এখন পর্যন্ত ৪৯৬ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে।



সাতদিনের সেরা