kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

জীবন দিয়ে সন্তানকে বাঁচালেন মা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জীবন দিয়ে সন্তানকে বাঁচালেন মা

‘স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে মহাসড়কের পাশে জমিতে ভেণ্ডি (ঢেঁড়স) তোলার জন্য যাচ্ছিলাম। আমি ও ছেলে মোহিন (১৪) মহাসড়ক পার হয়ে আসি। স্ত্রী নুরজাহান ও মেয়ে জান্নাতুল (৪) মহাসড়ক পার হওয়ার অপেক্ষায় দাঁড়িয়েছিল পাশের কাঁচা মাটিতে। হঠাৎ একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্ত্রী ও মেয়ের দিকে যাচ্ছিল। তখন নিশ্চিত মৃত্যু হচ্ছে দেখে নুরজাহান মেয়েকে হাত ধরে দূরে ছুড়ে দেয়। সাথে সাথে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয় নুরজাহান। ট্রাকটি মহাসড়কে উল্টে পড়ে।’

নাটোরের বড়াইগ্রামে গতকাল মঙ্গলবার স্ত্রীকে হারিয়ে বিলাপ করে এভাবেই ঘটনা বর্ণনা করছিলেন মিলন উদ্দিন। একই দিন আরো সাত জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রসহ সাতজন নিহত হয়েছে।

বড়াইগ্রাম উপজেলার গড়মাটি মুচিপাড়া গ্রামে পাবনা-নাটোর মহাসড়কে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত নুরজাহান বেগম (৩২) গড়মাটি মুচিপাড়ার মিলন উদ্দিনের স্ত্রী। দুর্ঘটনার পর মহাসড়কে প্রায় দুই ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। ট্রাকটি জব্দ করেছে পুলিশ।

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার শান্তিপুর গ্রামে শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কে দুপুরে ট্রাকচাপায় শিশু হাবিবা আক্তার (৭) নিহত হয়। সে উপজেলার শংকরপুর গ্রামের নুর উদ্দিনের মেয়ে। হাবিবা তার মা-বাবাকে নিয়ে শান্তিপুরে আত্মীয়ের বাড়িতে থেকে বাড়িতে ফিরছিল। পথে হাবিবা অটোরিকশায় উঠতে গেলে বালুবাহী ট্রাক তাকে চাপা দেয়। চালক পালিয়ে গেলেও ট্রাকটি আটক করেছে পুলিশ।

মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার যতারপুরে দুপুরে বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী গৃহবধূ রিজিয়া খাতুন (৩৩) নিহত ও তাঁর স্বামী সেন্টু মিয়া আহত হন। তাঁদের বাড়ি বাবুপুরে। সেন্টু স্ত্রীসহ মেহেরপুরে যাচ্ছিলেন। তাঁকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ ট্রাক জব্দ ও চালককে গ্রেপ্তার করেছে।

নরসিংদীর শিবপুরে মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেলটির আরোহী মানিক চন্দ্র দাস (৪০) নিহত ও আরেক আরোহী দিলীপ সরকার (৫০) গুরুতর আহত হয়েছেন। দুপুরে ঘাশিরদিয়া পুকুরপাড় এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। মানিক উপজেলার জয়নগর গ্রামের রবীন্দ্র চন্দ্র দাসের ছেলে।

মাদারীপুরের কালকিনিতে যাত্রীবাহী ইজি বাইক ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইজি বাইকচালকের প্রাণ গেছে। আহত হয়েছে ছয়জন। দুপুরে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের ডাসার ভাঙ্গাব্রিজ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত তোফাজ্জেল সরদার (৪০) মাদারীপুর সদর উপজেলার কুন্তিপাড়া গ্রামের মোসলেম সরদারের ছেলে।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে বালুবাহী ট্রাক্টরচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী স্কুলছাত্র রাকিবুল হাসান (১৪) নিহত ও তার সঙ্গে থাকা এক শিক্ষার্থী আহত হয়। গোবিন্দগঞ্জ-নাকাই সড়কের নতুন বাজার এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। রাকিবুল গাইবান্ধা শহরের গোরস্তানপাড়ার হারুন অর রশিদের ছেলে।

সিরাজগঞ্জের মুলিবাড়ী চেকপোস্ট এলাকায় দুপুরে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত হন মোটরসাইকেল আরোহী গৃহবধূ মনিকা আক্তার মৌ (২০)। আহত হন তাঁর স্বামী মোটরসাইকেলচালক আশিকুর রহমান। তাঁদের বাড়ি রাজশাহীর চারঘাট থানার চীরকুণ্ডী গ্রামে। আশিকুর ও মৌ ঢাকায় যাওয়ার পথে একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে তাঁদের মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মৌ সড়কে পড়ে যান। মুহূর্তে পেছন থেকে দ্রুতগামী ট্রাক তাঁকে চাপা দেয়।

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার ভাটেরচর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পার হওয়ার সময় মিনি কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় নিহত হন কার্তিক দাস (৫০)। তিনি স্থানীয় আফিল পেপার মিলের সাবেক শ্রমিক ও ভাটেরচরে সপরিবার বসবাস করতেন। তাঁর বাড়ি ময়মনসিংহে।

গাড়িটি কার্তিক দাসকে ধাক্কা দেওয়ার পর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভাটেরচর সেতুতে আঘাত করে। চালক গাড়িটি ফেলে পালিয়ে যান।

[প্রত্যক্ষদর্শী, এলাকাবাসী, থানা পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিরা]