kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

ছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার, গ্রেপ্তার ২

বিভিন্ন স্থানে দুই শিশুসহ তিনজনকে নিপীড়নের অভিযোগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার লাউতা ইউনিয়নে এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত দুজনকেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এ ছাড়া নড়াইলের লোহাগড়ায় শিশু ও গাজীপুরের টঙ্গীতে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার এবং কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।

বিয়ানীবাজারে গত মঙ্গলবার রাতের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন লাউতা ইউনিয়নের দক্ষিণ ঠিকরপাড়া গ্রামের মৃত ছাইদ আলীর ছেলে ফয়ছল আহমদ (২৮) ও উত্তর গাংপার এলাকার মৃত আব্দুর খালিকের ছেলে মিশুক আহমদ (৩০)। এই ঘটনায় গতকাল বুধবার দুপুরে এই অভিযুক্ত দুজনের বিরুদ্ধে বিয়ানীবাজার থানায় মামলা করেছেন লাউতার বাহাদুরপুর গ্রামের ভুক্তভোগীর বাবা।

পুলিশ ও নির্যাতিতার পরিবার জানায়, স্কুলছাত্রীটি (১২) রাত ১০টার দিকে ঘরের বাইরে টিউবওয়েলে পানি আনতে বের হয়। এ সময় ওত পেতে থাকা ফয়ছল ও মিশুক শিশুটিকে জোর করে তুলে নিয়ে পাশের একটি নির্জন জায়গায় ধর্ষণ করেন। অজ্ঞান অবস্থায় শিশুটিকে রেখে তাঁরা পালিয়ে যান। শিশুটির পরিবার অনেক খোঁজাখুঁজির পর অজ্ঞান অবস্থায় তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে। ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয়রা অভিযুক্তদের ধাওয়া দিয়ে আটক করে পুলিশে খবর দেন।

বিয়ানীবাজার থানার ওসি হিল্লোল রায় বলেন, অভিযুক্ত দুজনকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

লোহাগড়ায় গত বৃহস্পতিবারের ঘটনায় গতকাল গ্রেপ্তার হান্নান মোল্লার (৭০) বাড়ি উপজেলার মিঠাপুর গ্রামে। গতকালই এই ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুর মা লোহাগড়া থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। শিশুটিকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ মতে, ঘটনার পর অভিযুক্তের আত্মীয়-স্বজনরা মামলা না করার জন্য শিশুটির পরিবারকে চাপ দিচ্ছিল। লোহাগড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাহামুদুর রহমান বলেন, অভিযুক্তকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম ফুলমতি গ্রামে গত সোমবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটে বলে অভিযোগ। এ নিয়ে আপস-রফার চেষ্টা করা হলেও মঙ্গলবার রাতে শিশুটির (৫) বাবা থানায় মামলা করেন। অভিযুক্ত শাহাব উদ্দিন (৪৫) পশ্চিম ফুলমতির সরেমুদ্দিনের ছেলে। পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষা ও আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য গতকাল কুড়িগ্রামে পাঠিয়েছে। ফুলবাড়ী থানার ওসি রাজীব কুমার রায় জানান, আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

টঙ্গীর দত্তপাড়া শৈলারগাতি এলাকায় সোমবার দুপুরের ঘটনায় মঙ্গলবার গ্রেপ্তার যুবক হেলাল উদ্দিন চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার বামন সুন্দর গ্রামের মৃত খোরশেদ আলমের ছেলে। টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মো. জাবেদ মাসুদ বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণের মামলা হয়েছে।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র কুড়িগ্রাম, বিয়ানীবাজার, লোহাগড়া ও টঙ্গী প্রতিনিধি]



সাতদিনের সেরা