kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

অনুদানের গুজব

জামালপুর-কুড়িগ্রামে উপচে পড়া ভিড় শিক্ষার্থীদের

জামালপুর ও কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জামালপুর-কুড়িগ্রামে উপচে পড়া ভিড় শিক্ষার্থীদের

করোনাকালে সব শিক্ষার্থীকে ১০ হাজার টাকা সরকারি অনুদান দেওয়ার গুজবে গতকাল শনিবার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ঢল নেমেছিল জামালপুর ও কুড়িগ্রাম শহরে। প্রতিষ্ঠানপ্রধানদের কাছ থেকে প্রত্যয়নপত্র নিতে দুই জেলার স্কুল, কলেজ ও মাদরাসাগুলোতে ছিল শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপচে পড়া ভিড়। ফটোকপি ও অনলাইন সার্ভিসের দোকানগুলোতেও পা ফেলার জায়গা ছিল না।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে গত ১৮ জানুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুদানসংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, দুরারোগ্য ব্যাধি ও দৈব দুর্ঘটনার শিকার শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা অনুদানের জন্য আবেদন করতে পারবে। এ ক্ষেত্রে দুস্থ, প্রতিবন্ধী, গরিব ও অনগ্রসর ছাত্র-ছাত্রীরা অগ্রাধিকার পাবে। এই অনুদানের আবেদনের সময়সীমা ৭ই মার্চ (আজ রবিবার) পর্যন্ত। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাইকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার গুজব ছড়িয়ে পড়ায় দুই জেলায় প্রত্যয়নপত্রের জন্য হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়।

জামালপুরে গতকাল সকাল থেকেই প্রত্যয়নপত্র নেওয়ার জন্য ভিড় করে হাজার হাজার শিক্ষার্থী। দুপুর ১২টার দিকে জামালপুর সরকারি জাহেদা সফির মহিলা কলেজে গিয়ে দেখা গেছে, অন্তত পাঁচ হাজার ছাত্রী ভিড় করেছে প্রত্যয়নপত্র নেওয়ার জন্য। কলেজ ক্যাম্পাস, ক্লাসরুম, একাডেমি ভবনের বারান্দা থেকে শুরু করে কোথাও তিল ধারণের ঠাঁই নেই। এই পরিস্থিতিতে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. শহীদুল্লাহ ও অন্য শিক্ষকরা পড়েছেন বিপাকে।

মন্তব্য