kalerkantho

রবিবার। ২২ ফাল্গুন ১৪২৭। ৭ মার্চ ২০২১। ২২ রজব ১৪৪২

নির্বাচনী সহিংসতা

নতুন কাউন্সিলরের নামে বোমা হামলার অভিযোগ

সিংড়ায় বিএনপির কর্মীকে ‘মারধর’

সিরাজগঞ্জ ও সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি   

২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নতুন কাউন্সিলরের নামে বোমা হামলার অভিযোগ

সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী কাউন্সিলর তরিকুল ইসলাম খান খুনের ঘটনার রেশ এখনো কাটেনি। এরই মধ্যে পৌরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম ভুট্টোর বিরুদ্ধে পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম হাশেমের বাড়িতে বোমা হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ছে পৌরবাসী। তবে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে নাটোরের সিংড়া পৌরসভা নির্বাচনে প্রচার চালানোর সময় বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর এক কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে যুবলীগকর্মীর বিরুদ্ধে।

সিরাজগঞ্জ শহরের মালশাপাড়া মহল্লার নিজ বাড়িতে গতকাল মঙ্গলবার সকালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নজরুল ইসলাম হাশেম অভিযোগ করে বলেন, ‘১১ জানুয়ারি পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জাহাঙ্গীর আলম ভুট্টো ও তাঁর দুই ভাই বাবু ও মুরাদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে স্থানীয় যুবলীগ নেতা আল-আমিনকে কুপিয়ে আহত করা হয়। সে ঘটনায় ১২ জনের নামে থানায় মামলা করেছি। ওই মামলা তুলে নেওয়ার জন্য কাউন্সিলর ভুট্টো ও তাঁর সহযোগীরা বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছিল। এরই জের ধরে রবিবার রাতে আমার বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করা হয়। রাতেই পুলিশ এসে বোমার আলামত নিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে।’

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলতাফ হোসেন, আহত আল-আমিনের বাবা আসলাম হোসেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হান্নানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আলামত হিসেবে দুটি বোমা সংগ্রহ করেছে। তিনি জানান, যেকোনো মূল্যে পৌরসভার আইন-শৃঙ্খলা শান্তিপূর্ণ রাখতে কাজ করছে পুলিশ। অপরাধী যেই হোক ছাড় দেওয়া হবে না। নজরুল ইসলাম হাশেম সোমবার রাতে কাউন্সিলর ভুট্টোকে প্রধান আসামি করে ১০-১২ জনের নামে থানায় মামলা করেছেন। এজাহারভুক্ত আসামি কাউন্সিলর ভুট্টোর ছোট ভাই বাবুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

নাটোরের সিংড়ার ঘটনায় রিটার্নিং অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তায়জুল ইসলাম। অভিযোগ মতে, সোমবার সন্ধ্যায় সোহাগবাড়ী গ্রামে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারের সময় বিএনপিকর্মী লিটনকে বাঁশের লাঠি দিয়ে মারধর করেন স্থানীয় যুবলীগকর্মী ইদ্রিস আলী।

তায়জুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ও বাধার শিকার হচ্ছি। ধানের শীষের কর্মী লিটনকে মারধর করা হয়েছে।’ তবে ইদ্রিস আলী বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ মিথ্যা। আমি লিটনকে চিনিই না।’

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আছলাম জানান, এ বিষয়ে সিংড়া থানার ওসিকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সহকারী রিটার্নিং অফিসারের মাধ্যমে বলা হয়েছে।

মন্তব্য