kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

কেটে গেছে নিম্নচাপ

বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত জনজীবন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সাগরে নিম্নচাপ কেটে গেছে। উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তত্সংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি গত শুক্রবার পশ্চিম খুলনা উপকূল অতিক্রম করে। গতকাল শনিবার সকাল ৬টায় এটি গাজীপুর ও তত্সংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ হিসেবে অবস্থান করছিল। পরে এটি আরো দুর্বল হয়ে পড়ে। এর ফলে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে জারি করা সতর্কতা সংকেত আবহাওয়া অধিদপ্তর তুলে নিয়েছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে চাঁদপুরে ১৬৭ মিলিমিটার। এ সময় রাজধানী ঢাকায় ৩৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এর ফলে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে জমে যায় পানি। দেখা দেয় যানজট। তবে নিম্নচাপ কেটে যাওয়ায় দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির মাত্রা কমে এসেছে।

এদিকে সাগরের সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিতে দেশজুড়ে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে মন্দিরে মন্দিরে দুর্গোৎসবের অনুষ্ঠানে স্বাচ্ছন্দ্যে যেতে পারেননি হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেক মানুষ। খেটে খাওয়া মানুষ পড়েন আরো বিপদে। টানা বৃষ্টিতে অনেক জেলায় তৈরি হয়েছে শীতের আমেজ। পুকুর ও ঘেরের মাছ এবং মাঠের ফসল ও সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ আবদুল হামিদ বলেন, ‘লঘু ও নিম্নচাপের কারণে দেশজুড়ে টানা বৃষ্টি ঝরছিল। বৃষ্টি আস্তে আস্তে কমছে। কালও (রবিবার) কিছু জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।’ তিনি বলেন, ‘এখনো দেশের কোথাও কোথাও সক্রিয় রয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। এর প্রভাবে কোথাও কোথাও বৃষ্টি হবে। ধীরে ধীরে তা বিদায় নেবে।’

রবিবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, রংপুর ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুয়েক জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে।

দেশজুড়ে বৃষ্টি : কুড়িগ্রামে বন্যার ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে না উঠতেই গত তিন দিনের গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও ঝড়ে মাটি লুটিয়ে পড়েছে শত শত একর জমির আমন ক্ষেত। সদ্য শীষ বের হওয়া ও আধাপাকা ধানক্ষেত মাটিতে লুটিয়ে পড়ায় ভেঙে গেছে আমন চাষির স্বপ্ন। সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নের শিবরাম, খোলারপাড়, ভানুরভিটা ও রাজারহাট উপজেলার দেবালয়, সিংহীমারী, মহিধর গ্রাম ঘুরে দেখা যায়, আমন ক্ষেত মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে। বেশি ক্ষতি হয়েছে স্বর্ণ ধানের জাত ও হাইব্রিড জাতের ধানের ক্ষেত। কৃষি বিভাগ এসব ধানক্ষেতের আংশিক ক্ষতির আশঙ্কা করছে। পাশাপাশি মুলা, বেগুন, লালশাক, লাউশাক, কপিসহ বিভিন্ন সবজি ক্ষেতেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

কুড়িগ্রামের উলিপুরে রোপা আমন ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলার কয়েক শ হেক্টর রোপা আমন ক্ষেত বাতাসে হেলে পড়ায় তা পচে যাওয়ার শঙ্কা করছেন কৃষকরা। এই পরিস্থিতিতে অনেক কৃষক তাঁদের ফসল কেটে গোখাদ্য হিসেবে ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছেন।

সাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে বৃষ্টি-দমকা বাতাসে বগুড়ার নন্দীগ্রামের সবজি ক্ষেত ও পাকা ও আধাপাকা ধান মাটিতে নুয়ে পড়েছে। এই অসময়ে কার্তিকের বৃষ্টি ও বাতাসে শীতের আগাম সবজিও ক্ষতির মুখে পড়েছে।

ভারি বর্ষণের ফলে রাজবাড়ীর রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন হাটবাজারে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। রাজবাড়ীর কোথাও কোথাও হাঁটু পানি জমেছে।

নওগাঁর রাণীনগরে টানা বৃষ্টির কারণে উঠতি রোপা আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। ধানের শীষ বের হওয়ার সময় ধানগুলো জমিতে পড়ে যাওয়ায় ফলন বিপর্যয়ের শঙ্কায় রয়েছেন চাষিরা।

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে আমন ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আধাপাকা আমন ধান মাটিতে হেলে পড়েছে। নিচু এলাকার ধানক্ষেতগুলোতে ঢুকে পড়েছে পানি। এ ছাড়া বিভিন্ন সবজি ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা