kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

উপবৃত্তির তথ্যের কথা বলে স্কুল মাঠে জমায়েত

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পাবনা   

১০ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা পরিস্থিতির মধ্যে মাইকিং করে পাবনার বেড়ার হাঁটুরিয়া-জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ডেকে এনে জড়ো করানোর অভিযোগ উঠেছে। সরকারি নিষেধাজ্ঞা না মেনে উপবৃত্তির তথ্য সংগ্রহের কথা বলে গত শুক্রবার সকালে এই কাণ্ড ঘটান বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মো. শামীম মোল্লা। 

শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য সংগ্রহকে কেন্দ্র করে সংগঠিত এই জমায়েতের ছবি ও সংবাদ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গতকাল শনিবার ছড়িয়ে পড়ে। ফলে বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ ও সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা যায়, হাঁটুরিয়া-জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত এক হাজার ৬৮২ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে। প্রাথমিক স্তরে এত বেশি শিক্ষার্থী জেলার আর কোনো বিদ্যালয়ে নেই।

শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেওয়ার জন্য কয়েক দিন ধরে উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে কর্মতৎপরতা চলছে। এরই অংশ হিসেবে হাঁটুরিয়া-জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মাইকিং করে অভিভাবকের মুঠোফোনের নম্বর নিয়ে আসতে বলে। এ খবর প্রচার হতেই বিদ্যালয়ের সব শ্রেণির কয়েক শ অভিভাবক শিক্ষার্থীসহ বিদ্যালয়ে এসে উপস্থিত হন। সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা তো দূরের কথা, ভিড়ে অভিভাবক শিক্ষার্থীরা একে অন্যের শরীরের সঙ্গে লেপ্টে দাঁড়িয়ে থাকেন।  

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম হোসেন বলেন, ‘আমরা প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির কিছু শিক্ষার্থীকে অভিভাবকের মুঠোফোনের নম্বর নিয়ে আসতে বলেছিলাম। কিন্তু এর জন্য যা ঘটে গেছে তা সত্যিই অনাকাঙ্ক্ষিত ও বিব্রতকর। ভুল বুঝে বেশির ভাগ অভিভাবকই সন্তানসহ বিদ্যালয়ে এসে উপস্থিত হন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা