kalerkantho

শনিবার । ২৭ আষাঢ় ১৪২৭। ১১ জুলাই ২০২০। ১৯ জিলকদ ১৪৪১

বাক্প্রতিবন্ধী তরুণীকে ‘ধর্ষণের’ পর হত্যা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় গতকাল বুধবার এক বাক্প্রতিবন্ধী নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাঁকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় পুলিশ সন্দেহভাজন দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে। এদিকে সাতক্ষীরায় শিশু ধর্ষণ, কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা ও কুড়িগ্রামের উলিপুরে শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। চুয়াডাঙ্গায় গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

দিনাজপুর : নিহত মোছা. আঞ্জু আরার (৩০) বাড়ি খানসামা উপজেলার আলোকঝাড়ী ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে। গতকাল দুপুরে খানসামা ডিগ্রি কলেজের পেছনে ভুট্টাক্ষেত থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তরুণীর বাবা মামলা করেছেন।

সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় গত বৃহস্পতিবার শিশু (৬) ধর্ষণের অভিযোগে র‌্যাব-৬-এর হাতে গতকাল ভোরে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরের লক্ষ্মীণকুণ্ড গ্রাম থেকে গ্রেপ্তারকৃতের নাম লিয়াকত আলী (৫০)। তিনি সদর উপজেলার খানপুর গ্রামের আবু বক্কর সরদারের ছেলে।

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) : গত মঙ্গলবার রাতে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া হায়দার আলীর বাড়ি ভূরুঙ্গামারী উপজেলার জয়মনিরহাট ইউনিয়নের শিংঝাড় বগনীরপাড় গ্রামে। এর আগে এ ঘটনায় শিশুটির মা ভূরুঙ্গামারী থানায় মামলা করেন।

চুয়াডাঙ্গা : জেলা শহরে মঙ্গলবার সকালের ঘটনায় বিকেলে সদর থানায় মামলা করা হয়। মামলায় তিনজনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা হলেন ধর্ষণে অভিযুক্ত শহরের শান্তিপাড়ার আলমগীর হোসেনের ছেলে নাঈম হোসেন এবং তাঁর দুই সহযোগী অপু হোসেন ও রতন আলী।

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : উলিপুরের ঘটনায় গতকাল গ্রেপ্তার হওয়া আব্দুল হাইয়ের (৪৬) বাড়ি উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা