kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

সিরাজগঞ্জে ট্রেন ইঞ্জিন বিকল দেড় ঘণ্টা চলাচল বন্ধ

ভৈরবে বারবার বগি লাইনচ্যুতির ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা

সিরাজগঞ্জ ও ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জে মালবাহী ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলের ট্রেন যোগাযোগ প্রায় দেড় ঘণ্টা বন্ধ ছিল। গতকাল বুধবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে ঢাকা-ঈশ্বরদী রেলপথের মুলিবাড়ী চেকপোস্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশনমাস্টার ইসমাইল হোসেন জানান, ঈশ্বরদী থেকে আসা ভারতীয় পাথরবোঝাই ট্রেনটি বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পারে মুলিবাড়ী চেকপোস্ট এলাকায় পৌঁছলে এর ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। এতে সেতুর পশ্চিম পারে পঞ্চগড়গামী একতা এক্সপ্রেস ট্রেন আটকা পড়ে। পরে ঈশ্বরদী থেকে লাইফ ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে এসে মালবাহী ট্রেনটি সরিয়ে নিলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। সিরাজগঞ্জ শহরের মূল প্রবেশপথে ট্রেন ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় সড়কপথে যান চলাচলও বন্ধ ছিল।

এদিকে কিশোরগঞ্জের ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনের আউটার সিগন্যাল এলাকায় (ভৈরব-ময়মনসিংহ রেলপথে) একই স্থানে ৫১ দিনে তিনবার ট্রেন লাইনচ্যুতির ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি। কমিটি গঠনের পর সাত কার্যদিবসের মধ্যে গত মঙ্গলবার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়। প্রতিবেদনে তিন দুর্ঘটনার ভিন্ন ভিন্ন কারণ উল্লেখ করা হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

গত ১ অক্টোবরে ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসা ২৪২ ডাউন লোকাল ট্রেন ভৈরব রেলস্টেশনের আউটারে পৌঁছামাত্র একটি বগির তিনটি চাকা লাইনচ্যুত হয়। তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জরাজীর্ণ রেললাইন ও অতিরিক্ত গতির কারণেই বগিটি লাইনচ্যুত হয়েছিল। এ ছাড়া অতিরিক্ত গতির কারণে লাইনের কার্বের সুপার এলিভেশন ঠিক না থাকায় ১২ অক্টোবর রাতে একই ট্রেন একই স্থানে লাইনচ্যুত হয়। সর্বশেষ ২১ নভেম্বর দুপুরে জামালপুর থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী নাসিরাবাদ মেইল ট্রেন ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনে ঢোকার সময় আউটার সিগন্যালের কাছে বিকট শব্দে এর পেছনের একটি বগির চারটি চাকা লাইনচ্যুত হয়। ইঞ্জিন থেকে ৪ নম্বর কোচের আন্ডার গিয়ার পার্টসের সঙ্গে লাইনের ধাক্কা লাগায় এ ঘটনা ঘটে।

বারবার একই স্থানে ট্রেন লাইনচ্যুতির ঘটনায় ভৈরব বাজার জংশনের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী (সিগন্যাল) মো. সোলায়মান হোসেনকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা