kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

জেলা জজ পদে পদোন্নতি জটিলতা আর নেই

শর্ত শিথিল করে গেজেট প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর অতিরিক্ত জেলা জজ থেকে জেলা জজ পদে পদোন্নতি জটিলতার অবসান হলো। এসংক্রান্ত শর্ত শিথিল করেছে সরকার। সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ করে আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে শর্ত শিথিল করার আদেশটি গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে গেজটটি দেওয়া হয়। এর ফলে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বা সমপর্যায়ের বিচারক পদে এক বছরের অভিজ্ঞতাসহ মোট ১৫ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকলে একজন জেলা জজ হিসেবে পদোন্নতি পাবেন।

আগে দুই বছরের বিচারিক অভিজ্ঞতার শর্ত ছিল। ‘বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস (কর্মস্থল নির্ধারণ, পদোন্নতি, ছুটি মঞ্জুরি, নিয়ন্ত্রণ, শৃঙ্খলাবিধান এবং চাকরির অন্য শর্তাবলি) বিধিমালা, ২০০৭’-এ জেলা জজ পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বা সমপর্যায়ের বিচারক পদে দুই বছরের অভিজ্ঞতাসহ মোট ১৫ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতার কথা বলা হয়েছে।

ক্রান্তিকালীন সাময়িক ব্যবস্থা হিসেবে এক বছরের জন্য জেলা ও দায়রা জজ বা সমপর্যায়ের বিচারক পদে পদোন্নতি দিতে শর্ত শিথিল করা হয়েছে বলে উপসচিব (প্রশাসন-১) মাহবুবার রহমান সরকার স্বাক্ষরিত আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে। বিধিমালার বিধি-৪-এ জনস্বার্থে যোগ্যতা শিথিল করে পদোন্নতির সুযোগ রাখা হয়েছে।

বর্তমানে জেলা জজের ৫৩টি পদ শূন্য রয়েছে। এ ছাড়া জেলা জজদের পদমর্যাদাসম্পন্ন কর্মকর্তাদের দিয়ে পরিচালিত আরো ৪১টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল গঠনে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন মিলেছে। এখন এসব ট্রাইব্যুনালে বিচারক নিয়োগ দিতে হবে। সে হিসাবে জেলা জজের প্রায় ১০০টি পদ শূন্য। এ কারণে বর্তমানে অতিরিক্ত জেলা জজ থেকে জেলা জজ পদে পদোন্নতির প্যানেল তৈরির কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এই প্যানেল তৈরির জন্য এরই মধ্যে ১৪৮ জন অতিরিক্ত জেলা জজের এসিআর (বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন) সংগ্রহের কাজ শেষপর্যায়ে। শর্ত শিথিলের পর প্রজ্ঞাপন জারি হওয়ায় এখন পদোন্নতি প্যানেল তৈরির কাজ চূড়ান্ত হলেই জেলা জজের এসব শূন্য পদ পূরণ করা হবে বলে আইন মন্ত্রণালয় বলেছে।

গত ১২ ডিসেম্বর অতিরিক্ত জেলা জজ থেকে জেলা জজ পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে বিচারিক কাজে অভিজ্ঞতার শর্ত শিথিলের প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করে সুপ্রিম কোর্টের ফুল কোর্ট সভা।

মন্তব্য