kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইউরোপীয় কমিশনের নতুন প্রস্তাব

ইউরোপে বাণিজ্য সুবিধা পেতে পরিবেশ মান বজায় রাখতে হবে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউরোপে বাণিজ্য সুবিধা পেতে পরিবেশ মান বজায় রাখতে হবে

যেসব স্বল্পোন্নত ও মধ্যম আয়ের দেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) বাজারে জিএসপির আওতায় অগ্রাধিকার বাণিজ্য সুবিধা পেয়ে আসছে, তাদের নতুন করে আরো কিছু শর্ত পালন করতে হবে। গত পাঁচ দশক ধরে ইইউ ৬৭ দেশের জন্য জেনারালাইজড স্কিম অব প্রিফারেন্সেস (জিএসপি) চালু রেখেছে। ২০২৪ সাল থেকে এর হালনাগাদ কার্যকর হবে।

তাতে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য গতকাল বুধবার ইউরোপীয় কমিশন প্রস্তাব করেছে, যারা ইইউর বাজারে বাণিজ্য সুবিধা পেতে চায়, তাদের অবশ্যই পরিবেশগত ও শাসনগত মান বজায় রাখতে হবে। এর পাশাপাশি মানব ও শ্রম অধিকার রক্ষার অতিরিক্ত প্রতিশ্রুতিও মেনে চলতে হবে।

তাই হালনাগাদকরণে তারা নিজস্ব সবুজ কর্মসূচি ও ২০৫০ সাল নাগাদ কার্বন নিরপেক্ষতা অর্জনের যে লক্ষ্য, তাতে জোর দিতে চায়। ২৭ দেশের ব্লক ইইউ যে তিন ক্যাটাগরিতে অগ্রাধিকার বাণিজ্য সুবিধা দিয়ে আসছে, তা তারা অব্যাহত রাখবে বলে জানায়।

প্রথম পর্যায়ে তারা জিএসপির আওতায় বাংলাদেশসহ স্বল্পোন্নত দেশগুলোকে শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত বাজার প্রবেশাধিকার দিয়ে আসছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে ভারত ও নাইজেরিয়াসহ নিম্ন ও নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশগুলোকে স্ট্যান্ডার্ড জিএসপির আওতায় আংশিক সুবিধা দিচ্ছে। এ দেশগুলো দুই-তৃতীয়াংশ পণ্যে আংশিক শুল্ক সুবিধা পায়। তৃতীয় পর্যায়ে জিএসপি প্লাসের আওতায় পাকিস্তান ও ফিলিপাইনসহ বেশ কিছু দেশকে তাদের দুই-তৃতীয়াংশ পণ্যে শূন্য ট্যারিফ সুবিধা দিচ্ছে। তাদের মানবধিকার ও শ্রম অধিকার, পরিবেশ ও সুশাসন বিষয়ে ২৭টি আন্তর্জাতিক কনভেনশন বা নীতি মেনে চলতে হয়।

ইউরোপীয় কমিশন নতুন যে প্রস্তাব দিয়েছে, তা ২০২৪ সাল থেকে ১০ বছর পর্যন্ত মেনে চলতে হবে। এতে ছয়টি নতুন ধারা যুক্ত হবে, যার মধ্যে থাকবে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি, মানবধিকার ও শ্রম অধিকার, পরিবেশ, প্রতিবন্ধীদের অধিকার, আন্তর্দেশীয় সংগঠিত অপরাধ ইত্যদি। সূত্র : রয়টার্স।



সাতদিনের সেরা