kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় কাল ইভিএমে ভোট

সহিংসতা ও একতরফা ভোটের শঙ্কা বিনা ভোটে নির্বাচিত তিন মেয়র

বিশেষ প্রতিনিধি   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে




পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় কাল ইভিএমে ভোট

সহিংসতা ও একতরফা ভোটের শঙ্কার মধ্যে আগামীকাল রবিবার পঞ্চম ধাপে দেশের ২০ জেলায় ২৯ পৌরসভায় ভোট হতে যাচ্ছে। এসব পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। এ ছাড়া এর আগে অনুষ্ঠিত সাতটি পৌরসভায় বন্ধ ঘোষিত ভোটকেন্দ্রগুলোতে এবং মৃত্যুজনিত কারণে চট্টগ্রাম সিটির ৩১ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে, ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি পৌরসভার ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ও সিরাজগঞ্জ পৌরসভর ৬ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদেও ভোট হবে আজ। এর মধ্যে চট্টগ্রাম সিটির ওই ওয়ার্ড ও শৈলকুপায় ভোট হবে ইভিএমে।

এদিকে কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচনেও ভোট কাল। গতকাল শুক্রবার এ উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় দুজন গুলিবিদ্ধসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।

পঞ্চম ধাপে ভোট হবে চট্টগ্রামের মিরসরাই, বারইয়ারহাট ও রাঙ্গুনিয়া, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল, হবিগঞ্জ সদর, জামালপুরের সদর, মাদারগঞ্জ ও ইসলামপুর; রাজশাহীর দুর্গাপুর ও চারঘাট; বগুড়া সদর, মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর, কিশোরগঞ্জের ভৈরব, ভোলার সদর ও চরফ্যাশন, চাঁদপুরের শাহরাস্তি ও মতলব, কেশবপুর ও সৈয়দপুর, মাদারীপুর সদর ও শিবচর, রংপুরের হারাগাছ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ ও মহেশপুর, জয়পুরহাট সদর, ময়মনসিংহের নান্দাইল ও গাজীপুরের কালীগঞ্জ পৌরসভায়।

এই ধাপে যশোর সদর, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ ও চট্টগ্রামের রাউজান পৌরসভায় ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হাইকোর্টের আদেশে যশোর পৌরসভার ভোট স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনও। আর রাউজান পৌরসভায় সব পদে একক প্রার্থী হওয়ায় ভোটগ্রহণের প্রয়োজন নেই। এ ছাড়া মাদারীপুরের শিবচর ও চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে মেয়র পদে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

শঙ্কা ও অভিযোগ : বগুড়া পৌরসভার মোট ১১৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৫৫টিতে সহিংসতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ জন্য এই ৫৫ কেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কেন্দ্রগুলোকে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। এ ছাড়া ৮, ১৩, ১৪ ও ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে কয়েকটি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ চিহ্নিত করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা নির্বাচনে জেলা আওয়ামী লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ দুই নেতা নৌকায় ওপেন ভোট নেওয়ার কথা বলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) মাহমুদুল হক ভূঁইয়া। স্বেচ্ছাসেবক লীগের ওই নেতার ওপেন ভোট দেওয়ার পরামর্শের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। নৌকায় ওপেন ভোট হওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল হক খোকনও।

রাজশাহীর চারঘাটে বিএনপির মেয়র প্রার্থী জাকিরুল ইসলাম বিকুল তাঁর নির্বাচনী এলাকায় প্রচারে বাধা, কেন্দ্র দখলের হুমকি, নেতাকর্মীদের ভয়ভীতি দেখানোসহ পুলিশি হয়রানির উল্লেখ করে এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

জামালপুর পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও তাঁর সমর্থকদের বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকি, পোস্টার লাগাতে না দেওয়াসহ নানাভাবে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ করেন।

জয়পুরহাট পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী শামছুল হক অভিযোগ করেছেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী আচরণবিধি ভঙ্গ করে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছেন। প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি।

যশোরের কেশবপুরে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পাঁচ কাউন্সিলর প্রার্থী ও এক কর্মীকে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মেয়র পদে নৌকায় প্রকাশ্যে ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন ৯টি ওয়ার্ডের ৫৭ জন কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা। ঝিনাইদহের মহেশখালী পৌরসভায় বিএনপি প্রার্থী আমিরুল ইসলাম খানের অভিযোগ, তাঁর সমর্থক ও কর্মীদের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ক্যাডার বাহিনী দিয়ে ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। অনেক জায়গায় পোস্টার লাগাতে বাধা দেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বারইয়ারহাটেও মেয়র পদে একতরফা ভোটের আশঙ্কা রয়েছে। এই দুই পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে প্রতিটি ওয়ার্ডে একাধিক প্রার্থী থাকায় ভোটকেন্দ্রে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোলযোগের শঙ্কা অনেকের।

নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ও পৌর বিএনপির আহ্বায়ক শেখ বাবলুকে কে বা কারা তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করা হয়েছে। গতকাল সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা বিএনপির এক সংবাদ সম্মেলনে ওই অভিযোগ করা হয়।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘন, প্রচারণায় বাধা, হুমকি-ধমকি দেওয়ার অভিযোগ এনেছেন। ৯টি ভোটকেন্দ্রের সবই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে পুলিশ।

[প্রতিবেদনে তথ্যের জোগান দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র স্থানীয় প্রতিনিধিরা]

মন্তব্য