kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

যুবলীগের আসন্ন কংগ্রেস

আ. লীগ প্রধানের সঙ্গে বৈঠকে তিন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে

ওমর ফারুক ও এমপি শাওন গণভবনে নিষিদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আ. লীগ প্রধানের সঙ্গে বৈঠকে তিন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস বিষয়ে বৈঠকটি হচ্ছে আজ রবিবার বিকেলে। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ওই বৈঠকে অংশ নেবেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকরা। নানা অপকর্মে সমালোচনার মুখে থাকা যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন ওই সভায় থাকার অনুমতি পাননি।

যুবলীগের বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে মূলত তিন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে। বিষয়গুলো হলো—ওমর ফারুক চৌধুরীর অনুপস্থিতিতে যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেসে সভাপতিত্ব কে করবেন, যুবলীগের নেতৃত্ব নির্বাচনে বয়সসীমা বেঁধে দেওয়া হবে কি না, সম্মেলন প্রস্তুত কমিটিতে কাকে আহ্বায়ক করা হবে।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা যুবলীগের মূল অভিভাবক। তিনি আমাদের কংগ্রেসের সার্বিক বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেবেন। তাঁর সঙ্গে বৈঠকে আমাদের কংগ্রেস কিভাবে সম্পন্ন হবে সে বিষয়গুলো চূড়ান্ত হবে।’

যুবলীগের একাধিক সূত্র মতে, দীর্ঘদিন ধরে একটি সিন্ডিকেট যুবলীগকে করায়ত্ত করে রেখেছিল। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এবার কংগ্রেসের সার্বিক বিষয়গুলো নিজে সরাসরি তত্ত্বাবধান করছেন। ফলে দীর্ঘদিনের ত্যাগী ও মেধাবী নেতারা আজকের বৈঠকের দিকে চেয়ে আছেন। এই বৈঠকেই যুবলীগের নেতা হওয়ার বয়সসীমা বেঁধে দেওয়ার সম্ভাবনা আছে। অনেক নেতাকর্মীই চান যুবলীগ নেতাদের বয়স ৫০ বছরের মধ্যে রাখা হোক। বর্তমান কমিটির বেশির ভাগ নেতার বয়স ৬০ থেকে ৭০ বছর হওয়ায় তরুণ প্রজন্মের চাওয়ার সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলতে যুবলীগের সমস্যা হচ্ছে। সূত্রগুলো জানায়, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরেই সংগঠনে ব্যাপক

প্রতাপশালী ছিলেন। ফলে কেন্দ্রীয় কমিটির অন্য নেতারা ছিলেন একেবারেই কোণঠাসা। এবার কংগ্রেসের আগে ওমর ফারুক চৌধুরীকে যুবলীগের কর্মকাণ্ড থেকে দূরে সরিয়ে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। ফলে কংগ্রেসে কে সভাপতিত্ব করবেন, তা নিয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে নানা আলোচনা চলছে। আজকের বৈঠকে এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতির কাছে সিদ্ধান্ত জানতে চাইবেন যুবলীগ নেতারা। এ ছাড়া সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের বিষয়েও আওয়ামী লীগ সভাপতির মত জানতে চাইবেন তাঁরা। আজকের বৈঠকের পরই যুবলীগের কংগ্রেসের পোস্টার ছাপাসহ আনুষ্ঠানিক নানা কাজ শুরু হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা