kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

জীববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্র

এইচএসসি পরীক্ষা : অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন

সুনির্মল চন্দ্র বসু, সহকারী অধ্যাপক, সরকারি মুজিব কলেজ সখীপুর, টাঙ্গাইল

২৬ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এইচএসসি পরীক্ষা : অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন

দ্বিতীয় অধ্যায়

প্রাণীর পরিচিতি

প্রথম পরিচ্ছেদ

প্রতীক প্রাণী Hydra

জ্ঞানমূলক প্রশ্ন

১।   অরীয় প্রতিসাম্য কী?

     উত্তর : কোনো প্রাণীর দেহকে যদি কেন্দ্রীয় লম্ব অঙ্গ বরাবর কেটে সদৃশ দুইয়ের বেশিসংখ্যক অর্ধাংশে ভাগ করা যায়, তখন সে ধরনের প্রতিসাম্যকে অরীয় প্রতিসাম্য বলে। যেমন—হাইড্রা, জেলিফিশ, সি অ্যানিমন ইত্যাদি।

২।

বিজ্ঞাপন

  হাইপোস্টোম কী?

     উত্তর : হাইড্রার দেহে মুক্ত প্রান্তে অবস্থিত, মোচাকৃতি, ছোট ও সংকোচন-প্রসারণশীল অংশকে হাইপোস্টোম বলে।

৩।   নিডোসাইট কী?

     উত্তর : Cnidaria পর্বের সব প্রাণীর এপিডার্মিসের পেশি আবরণী কোষগুলোর মধ্যবর্তী স্থান বা অভ্যন্তরে যেসব বিশেষায়িত কোষ থাকে তাদের নিডোসাইট বলে।

৪।   নেমাটোসিস্ট কী?

     উত্তর : নিডোসাইটের অভ্যন্তরে অবস্থিত, কাইটিনের মতো পদার্থে নির্মিত আবরণে আবৃত ও সূত্রকযুক্ত একটি ক্যাপসুলকে নেমাটোসিস্ট বলে।

৫।   হিপনোটক্সিন কী?

     উত্তর : নেমাটোসিস্টের ভেতরের তরলের নাম হিপনোটক্সিন। এটি বিষাক্ত প্রাকৃতিক এবং রাসায়নিকভাবে প্রোটিন ও ফেনন সমন্বয়ে গঠিত।

৬।   বাট/শ্যাফট কী?

     উত্তর : নেমাটোসিস্টের সূত্রকের গোড়ার অংশটি প্রশস্ত। এ অংশকে বাট/শ্যাফট বলে।

৭।   মেসোগ্লিয়া কী?/বলতে কী বুঝো?

     উত্তর : Hydra-র এপিডার্মিস ও গ্যাস্ট্রোডার্মিসের মাঝখানে অবস্থিত জেলির মতো স্বচ্ছ, স্থিতিস্থাপক স্তরকে মেসোগ্লিয়া বলে। এটি দেহের অবলম্বনে সহায়তা করে এবং এক ধরনের নমনীয় কঙ্কাল হিসেবে কাজ করে।

৮।   সিলেন্টেরন কী?/বলতে কী বুঝো?

     উত্তর : Hydra-র দেহের কেন্দ্রভাগে অবস্থিত ও গ্যাস্ট্রোডার্মিসে পরিবৃত্ত ফাঁকা গহ্বরকে সিলেন্টেরন বলে। এতে খাদ্যের বহিঃকোষীয় পরিপাক ঘটে এবং খাদ্যসার, শ্বসন ও রেচন পদার্থ পরিবাহিত হয় বলে একে গ্যাস্ট্রোভাস্কুলার গহ্বর বা পরিপাক সংবহন গহ্বর বলে।

৯।   চলন কী?

     উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় জীবদের জৈবিক প্রয়োজনে নিজ চেষ্টায় স্থানান্তরিত হয় তাকে চলন বলে।

১০।   লুপিং বা হামাগুড়ি চলন কী?

     উত্তর : পতঙ্গের ক্যাটারপিলার লার্ভার মতো লুপ বা ফাঁস গঠন করে। Hydra-র চলনকে লুপিং বা হামাগুড়ি চলন বলে। লম্বা দূরত্ব অতিক্রমের জন্য Hydra সাধারণত লুপিং চলৃনর আশ্রয় ৃনয়।

১১।   ডিগবাজি বা সমারসল্টিং চলন কী?

     উত্তর : এটি Hydra-র দ্রুত চলনপ্রক্রিয়া। দুইবার লুপ সৃষ্টির মাধ্যমে এ চলন ঘটে।

১২। উত্তটিড কী?

     উত্তর : উত্তসাইট মিয়োসিস বিভাজনে তিনটি ক্ষুদ্র পোলারবডি ও একটি বড় সক্রিয় উত্তটিড সৃষ্টি করে।

১৩। পরস্ফুিটন কী?

     উত্তর : যেসব পরিবর্তনের মাধ্যমে জাইগোট থেকে শিশু প্রাণীর উৎপত্তি ঘটে তাকে পরস্ফুিটন বলে।

১৪। বহুরূপতা কী?

     উত্তর : একই প্রজাতির সদস্যদের জীবনচক্রে ভিন্ন দুটি বা ততোধিক শারীরিক গঠন প্রকাশ পাওয়াই হলো বহুরূপতা।

     যেমন—Cnidaria পর্বের প্রাণীদের পলিপ ও মেডুসা দশা বিদ্যামান।

১৫।   মিথোজীবিতা বলতে কী বোঝায়?

     উত্তর : যখন দুটি ভিন্ন প্রজাতিভুক্ত জীব ঘনিষ্ঠভাবে সহাবস্থানের ফলে পরস্পরের কাছ থেকে উপকৃত হয়, তখন এ ধরনের সাহচর্যকে মিথোজীবিতা বলে। শৈবাল হাইড্রা গ্যাস্ট্রোডার্মাল পেশি আবরণী কোষে আশ্রয় পায়। সালোকসংশ্লেষণকালে শৈবাল যে O2 নির্গত করে, হাইড্রা তা শ্বসনে ব্যবহার করে।



সাতদিনের সেরা