kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

বাংলা দ্বিতীয় পত্র

নবম ও দশম শ্রেণি : ধ্বনি ও বর্ণ

আতাউর রহমান সায়েম, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা

১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



এককথায় উত্তর দাও

১।         কোনো বর্ণের ওপরে কষি বা রেখা দেওয়াকে কী বলে?

            উত্তর : মাত্রা।

২।          বর্ণমালায় ব্যবহৃত মাত্রাহীন বর্ণগুলোর মধ্যে কয়টি ব্যঞ্জনবর্ণ রয়েছে?

            উত্তর : ছয়টি।

বিজ্ঞাপন

৩।          স্বরবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপকে কী বলা হয়?

             উত্তর : কার বা সংক্ষিপ্ত স্বর।

৪।         কয়টি ব্যঞ্জনবর্ণ ফলারূপে ব্যবহূত হতে পারে?

            উত্তর : ছয়টি।

৫।          ঠোঁট ও নাকের ছিদ্রের সাহায্যে উচ্চারিত হয় কোন ধ্বনিটি?

     উত্তর : ‘ম’।

৬।          অঘোষ ‘হ’ ধ্বনির বর্ণরূপ কী?

            উত্তর : ‘ঃ’।

৭।          বাংলা বর্ণমালার কোন বর্ণটি স্বতন্ত্রভাবে উচ্চারিত হয় না?

      উত্তর : ‘ৎ’।

৮।          বাঙালি শিশুরা কোন বর্গের ধ্বনিগুলো আগে শেখে?

            উত্তর : ‘প’ বর্গের।

৯।          ঙ, ঞ, ণ, ন, ম, ং, ঁ ধ্বনিগুলো ইংরেজি করলে কোন বর্ণ লিখতে হয়?

            উত্তর : ঘ।

১০।        বাংলা ভাষায় কয়টি যৌগিক স্বরবর্ণ রয়েছে?

            উত্তর : দুটি।

১১।        আধুনিক বাংলায় যৌগিক স্বরধ্বনির সংখ্যা কতটি?

            উত্তর : ২৫টি।

১২।        অক্ষর কাকে বলে?

            উত্তর : কোনো শব্দ একবারে উচ্চারণ করাকে অক্ষর বলে।

১৩।        বানান কাকে বলে?

            উত্তর : ব্যঞ্জন বর্ণের সঙ্গে স্বরবর্ণের যোগ করাকে বানান বলে।

১৪। কোন স্বরবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপ নেই?

            উত্তর : ‘অ’।

১৫। ধ্বনি উচ্চারণের উৎস কোথায়?

            উত্তর : ফুসফুস।

১৬। জিহ্বামূল থেকে উচ্চারিত ধ্বনিগুলোর নাম কী?

            উত্তর : কণ্ঠ বা জিহ্বামূলীয় ধ্বনি।

১৭।        ‘হ্ম’ যুক্তাক্ষরটি কোন কোন বর্ণযোগে গঠিত?

            উত্তর : হ্+ম।

১৮।        ‘ঞ্জ’ যুক্তাক্ষরটি কোন কোন বর্ণযোগে গঠিত?

            উত্তর : ঞ্+জ।

১৯।        ‘জ্ঞ’ যুক্তাক্ষরটি কোন কোন বর্ণযোগে গঠিত?

            উত্তর : জ্+ঞ।

 ২০। এক অক্ষরবিশিষ্ট শব্দের উচ্চারণ সব সময় কী হয়?

            উত্তর : দীর্ঘ।

২১। খণ্ড ‘ত’ ৎ। প্রকৃত প্রস্তাবে কোন বর্ণের বহুরূপ?

            উত্তর : ‘ৎ’।

২২। ‘আহবান’-এর প্রকৃত উচ্চারণ লেখো।

            উত্তর : আওভান্।

২৩। যৌগিক স্বরের অপর নাম কী?

            উত্তর : দ্বিস্বর/সান্ধ্যক্ষর।

২৪। বাংলা বর্ণমালায় মৌলিক স্বরধ্বনি কয়টি?

            উত্তর : ৭টি।

২৫। ‘ক্ষ্ম’ বর্ণটি বিশেষণ করো। উত্তর : ক্ + ষ্ + ম।

২৬। অনুস্বার (ং) ও বিসর্গ (ঃ) কে কী বর্ণ বলে?

            উত্তর : অযোগবাহ বর্ণ/পরাশ্রয়ী বর্ণ।

২৭।        ‘র’ ধ্বনিকে কী ধ্বনি বলে?

            উত্তর : কম্পোনজাত ধ্বনি।

২৮। ‘ল’ ধ্বনিকে কী ধ্বনি বলে?

            উত্তর : পার্শ্বিক ধ্বনি।

২৯।        কোন চারটি বর্ণকে উষ্ম বর্ণ বলে?

            উত্তর : শ, ষ, স, হ।

৩০।        কোন ধ্বনি উচ্চারণের সময় স্বরতন্ত্রী বেশি অনুরণিত হয়?

            উত্তর : ঘোষ ধ্বনি।

৩১। ‘এ’ ধ্বনির বিবৃত উচ্চারণ শব্দের কোথায় পাওয়া যায়?

            উত্তর : আদিতে।

৩২। ‘নিনাদবর্ণ’ বলতে কোন জাতীয় বর্ণকে বুঝায়?

            উত্তর : ঘোষ বর্ণ।

৩৩। উচ্চারণের সময় মুখবিবর উন্মুক্ত থাকে বলে প্রধানত আ-কে কী ধ্বনি বলা হয়?

            উত্তর : বিবৃত।

৩৪।        কোন দুটি বর্ণকে যৌগিক স্বর বলা হয়?

            উত্তর : ঐ, ঔ।

৩৫। ধ্বনি পরিবর্তন বাংলা ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়?

            উত্তর : ধ্বনিতত্ত্বে।

৩৬।        ‘ধ্বনিবিজ্ঞান ও বাংলা ধ্বনিতত্ত্ব’ গ্রন্থটি কে লিখেছেন?

            উত্তর : ড. মুহম্মদ আবদুল হাই।

৩৭।        ড় এবং ঢ় ধ্বনিকে কী ধ্বনি বলা হয়?

            উত্তর : তাড়নজাত।

৩৮।        পরাশ্রয়ী বর্ণ কয়টি?

            উত্তর : ৩টি।

৩৯। Vowel Harmony-র বাংলায় স্বরসংগতি নামকরণ করেছেন কে?

            উত্তর : ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়।

৪০। শব্দের ক্ষুদ্রতম একক কী?

            উত্তর : ধ্বনি।

৪১।        ব্যঞ্জনবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপকে কী বলে?

            উত্তর : ফলা।

৪২।        বাংলা ভাষায় মাত্রাহীন বর্ণ কয়টি?

            উত্তর : ১০টি।

৪৩। শ, ষ, স, হ—এই চারটি বর্ণ উষ্ম বর্ণ হয়েও শিষ ধ্বনি নয় কোন বর্ণ?

            উত্তর : ‘হ’।

৪৪। ঘোষ মহাপ্রাণ কণ্ঠধ্বনি কোনটি?

            উত্তর : ‘ঘ’।

৪৫। য, র, ল, ব—এই চারটি বর্ণকে কী বলে?

            উত্তর : অন্তঃস্থ বর্ণ।

৪৬। কম্পনজাত ধ্বনি কোন বর্ণটিকে বলা হয়?

            উত্তর : র।

৪৭। ‘ঞ্চ’ যুক্তাক্ষরটি কোন কোন বর্ণযোগে গঠিত?

            উত্তর : ঞ্+চ।

৪৮।        কোন তিনটি বর্ণকে অযোগবাহ বর্ণ বলে?

            উত্তর : ং, ঃ,  ঁ।

৪৯। কোন চারটি বর্ণে দ্যোদিত ধ্বনি কখনো শব্দের প্রথমে আসে না?

            উত্তর : ঙ, ং, ঞ, ণ।

৫০। শব্দের ‘অ’ ধ্বনির কয় রকম উচ্চারণ পাওয়া যায়?

            উত্তর : দুই।

৫১। সংযুক্ত বর্ণের উচ্চারণ কী হয়?

            উত্তর : বর্ণক্রমিক।

৫২। অভিধা কী?

            উত্তর : শব্দের শেষ বর্ণের আগের ধ্বনিটিকে অভিধা বলে।

৫৩। ধ্বনি নির্দেশক সাংকেতিক চিহ্নকে কী বলা হয়?

            উত্তর : বর্ণ।

৫৪। বর্গীয় বর্ণকে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?

            উত্তর : পাঁচ।

৫৫। ক থেকে ম পর্যন্ত ২৫টি বর্ণকে কী বলে?

            উত্তর : স্পর্শ বর্ণ বা স্পৃষ্ট বর্ণ।

৫৬। বাংলা স্পর্শ ব্যঞ্জনগুলোতে কয়টি নাসিক্য বর্ণ আছে?

            উত্তর : পাঁচটি।

৫৭। অন্তঃস্থ ‘য’ ও অন্তঃস্থ ‘ব’-কে কী বলা হয়?

            উত্তর : অর্ধস্বর।

৫৮।        প্রত্যেক বর্গের ২য় ও ৪র্থ বর্ণকে কী বলে?

            উত্তর : মহাপ্রাণ বর্ণ।

৫৯। বিসর্গকে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?  

            উত্তর : দুটি।   



সাতদিনের সেরা