kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৯ জুলাই ২০২১। ১৮ জিলহজ ১৪৪২

পঞ্চম শ্রেণি : প্রাথমিক বিজ্ঞান

সোনিয়া আক্তার, সহকারী শিক্ষক, ধামদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মুন্সীগঞ্জ সদর, মুন্সীগঞ্জ

১৬ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সংক্ষিপ্ত  প্র শ্ন

তৃতীয় অধ্যায়

জীবনের জন্য পানি

১।   পানির উৎস কয়টি ও কী কী?

     উত্তর : পানির উৎস দুটি। যেমন—

     ক) প্রাকৃতিক উৎস

     খ) মানুষের তৈরি উৎস।

২।   পানির প্রাকৃতিক উৎসগুলো কী কী?

     উত্তর : পানির প্রাকৃতিক উৎসগুলো হলো—বৃষ্টি, নদী, সমুদ্র ইত্যাদি।

৩।   মানুষের তৈরি পানির উৎসগুলো কী কী?

     উত্তর : মানুষের তৈরি পানির উৎসগুলো হলো—দিঘি, পুকুর, কূপ, নলকূপ ইত্যাদি।

৪।   উদ্ভিদের দেহের কত ভাগ পানি?

     উত্তর : উদ্ভিদের দেহের প্রায় ৯০ ভাগ পানি।

৫।   উদ্ভিদের পানি প্রয়োজন কেন?

     উত্তর : মাটি থেকে পুষ্টি উপাদান সংগ্রহ ও বিভিন্ন অংশে পরিবহনের জন্য উদ্ভিদের পানি প্রয়োজন।

৬।   প্রচণ্ড গরমে পানি উদ্ভিদের দেহে কী কাজ করে?

     উত্তর : প্রচণ্ড গরমে পানি উদ্ভিদের দেহ শীতল করতে সাহায্য করে।

৭।   মানবদেহের কত ভাগ পানি?

     উত্তর : মানবদেহের ৬০-৭০ ভাগ পানি।

৮।   মানবদেহে পানি কী কাজ করে?

     উত্তর : মানবদেহে পানি খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে।

৯।   মানবদেহে পানি কেন প্রয়োজন?

     উত্তর : পুষ্টি উপাদান শোষণ ও দেহের প্রত্যেকটি অঙ্গে পরিবহনের জন্য মানবদেহে পানি প্রয়োজন।

১০। শিশির কী?

     উত্তর : রাতে ঘাস, গাছপালা ইত্যাদির ওপর যে বিন্দু বিন্দু পানি জমে তাকে শিশির    বলে।

১১। ঘনীভবন কী?

     উত্তর : বাতাসের জলীয় বাষ্প ঠাণ্ডা হয়ে পানিতে পরিণত হয়। বাষ্প থেকে এভাবে তরলে পরিণত হওয়াকে ঘনীভবন বলে।

১২। বাষ্পীভবন কী?

     উত্তর : পানিকে যখন তাপ দেওয়া হয়, তখন তা জলীয় বাষ্পে পরিণত হয়। তরল থেকে এভাবে বাষ্পে পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়াই হচ্ছে বাষ্পীভবন।