kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জনরোষ থেকে প্রিয়ান্থা কুমারাকে বাঁচাতে পারলেন না সহকর্মী

অনলাইন ডেস্ক   

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ২২:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জনরোষ থেকে প্রিয়ান্থা কুমারাকে বাঁচাতে পারলেন না সহকর্মী

ব্লাসফেমির অভিযোগে শিয়ালকোটে শ্রীলঙ্কার কারখানা ম্যানেজার প্রিয়ান্থা কুমারা দিয়াওয়াদানেজকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় আরো গ্রেপ্তার ও নিন্দা অব্যাহত রয়েছে। শনিবার ডন ডটকমের প্রাপ্ত নতুন ফুটেজে দেখা গেছে, নৃশংস ও উত্তেজিত একদল জনতার হাত থেকে প্রিয়ান্থাকে তাঁর একজন সহকর্মী রক্ষা করার চেষ্টা করছেন।

প্রিয়ান্থাকে নির্মমভাবে হত্যা করে শুক্রবার তার শরীরে আগুন দেওয়া হয়। পাঞ্জাবের আইজিপি রাও সরদার আলি খান বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, কর্তৃপক্ষের কাছে তার প্রাথমিক প্রতিবেদন দিয়েছে। প্রিয়ান্থা ওয়াজিরাবাদ রোডে অবস্থিত রাজকো ইন্ডাস্ট্রিজের কর্মচারীদের একটি বিদেশি প্রতিনিধিদল আসার আগে কারখানার মেশিন থেকে সমস্ত স্টিকার সরাতে বলেন।

শ্রমিকরা পরে কারখানা চত্বরে বিক্ষোভ করে। অভিযোগ করে যে তিনি ব্লাসফেমি করেছেন। তারা যান চলাচল বন্ধ করে দেয় এবং কারখানার সকল শ্রমিক এবং বিপুলসংখ্যক স্থানীয় লোকজন তাদের সঙ্গে যোগ দেয়। কজন থেকে শতাধিক- ভিড় ক্রমশ বাড়ছে দেখে প্রিয়ান্থা ছাদে চলে যান।

লিঞ্চিংয়ের আগে তোলা ফুটেজে একজন সহকর্মীকে কারখানার ছাদে প্রিয়ান্থাকে রক্ষা করার চেষ্টা করতে দেখা যায়। এ সময় ভিড় বাড়তে থাকে। ভিডিওতে জনতার মধ্যে কজনকে স্লোগান দিতে এবং বলতে শোনা যায় 'তিনি (ম্যানেজার) আজকে পালাতে পারবেন না'। 

শ্রমিকরা পরে সহকর্মীকে পরাস্ত করে এবং প্রিয়ান্থাকে রাস্তায় টেনে নিয়ে যায়। এর পর লাথি, পাথর ও লোহার রড দিয়ে তাকে পিটিয়ে ঘটনাস্থলেই হত্যা করে। পরে উত্তেজিত জনতা লাশে আগুন ধরিয়ে দেয়।

প্রিয়ান্থা একজন শ্রীলঙ্কার খ্রিস্টান। তিনি রাজকো ইন্ডাস্ট্রিজে ১০ বছর ধরে কাজ করছিলেন।
সূত্র : ডন



সাতদিনের সেরা