kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

নাবালক চারজনের লালসার শিকার বোবা তরুণী, অভিযুক্ত একজনের বয়স ১১

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ জুলাই, ২০২০ ০৯:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাবালক চারজনের লালসার শিকার বোবা তরুণী, অভিযুক্ত একজনের বয়স ১১

প্রতীকী ছবি

তরুণী কথা বলতে পারে না এবং কানেও শোনে না। সেই বোবা ও বধির তরুণীর দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তাকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে চার নাবালকের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, অভিযুক্তদের একজনের বয়স মাত্র ১১ বছর। সেই হিসেবে কৈশোরে পা দেওয়ার আগেই ধর্ষণের মতো ঘটনায় সে জড়িয়ে গেছে।

অন্যদের বয়স শুনলেও চোখ কপালে উঠবে। অভিযুক্তদের মধ্যে সবচেয়ে বড়জনের বয়স ১৪ বছরের কম। অন্য দু'জনের বয়সও ১৩ বছর করে। ভারতের মধ্যপ্রদেশের ছাতারপুরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের এ ঘটনায় অভিযুক্ত চার জনকেই আটক করেছে পুলিশ।

ছাতারপুরের পুলিশ সুপার সচিন শর্মা জানান, স্থানীয় গৌরীহর থানায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গত সোমবার গ্রেপ্তার করা হয় ধর্ষণে অভিযুক্তদের। চারজনই নাবালক। অভিযুক্তদের বয়স ১১ থেকে ১৪ বছরের মধ্যে।

ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা সরিতা ভার্মা জানান, জেলাসদর থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে, গৌরীহর থানা এলাকায় গত রবিবার সন্ধ্যায় ২০ বছর বয়সী বোবা-বধির তরুণীকে চারজনে ধর্ষণ করে। প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাড়ির বাইরে বেরিয়েছিলেন ওই তরুণী।

তিনি আরো বলেন, অনেকক্ষণ পরেও ঘরে না-ফেরায়, বাড়ির লোকেদের সন্দেহ হয়। কিছুক্ষণ খোঁজাখুঁজির পর বাড়ির অদূরে পুকুরের পাড় থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখে পরিবারের সন্দেহ হয়। ওই তরুণী আকারে ইঙ্গিতে ঘটনার কথা জানালে, মেয়েটির পরিবার রাতেই থানায় গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ করে।

ঘটনার প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানায়, অভিযুক্তরা ওই তরুণীর পূর্ব-পরিচিত। ওই তরুণী যে গ্রামে থাকে, তারাও সেই গ্রামেরই। সেই সূত্রে পরিচিত।

গত রবিবার রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাড়ির অদূরে ধানখেতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। সন্ধ্যার নির্জনতায় তরুণীকে একা পেয়ে চারজন মিলে তাকে ঘিরে ধরে।

অভিযোগ উঠেছে, যৌন নিপীড়নের পর পুকুর পাড়ে তাকে ফেলে রেখে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা। অন্ধকার নেমে আসায় কেউ টেরও পায়নি।

পুলিশের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত চারজনই নিজেদের অপরাধ স্বীকার করেছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির সংশ্লিষ্ট ধারায় তাদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে। হাসপাতালে ওই তরুণীর মেডিক্য়াল পরীক্ষাও করানো হয়েছে।

সেই রিপোর্ট হাতে আসার অপেক্ষায় আছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তরা প্রত্যেকে নাবালক হওয়ায়, শিশু হিসেবেই তাদের বিচার হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা