kalerkantho

সোমবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭। ১ মার্চ ২০২১। ১৬ রজব ১৪৪২

দর্শকদের বর্ণবাদী মন্তব্য আমাকে আরও শক্তি দিয়েছে : সিরাজ

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৫৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দর্শকদের বর্ণবাদী মন্তব্য আমাকে আরও শক্তি দিয়েছে : সিরাজ

অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজ চলাকালীন বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য শুনতে হয়েছিল ভারতের ডান-হাতি পেসার মোহাম্মদ সিরাজকে। আর সেই মন্তব্যই তাকে মানসিকভাবে শক্তিশালী করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। সিরাজ জানান, সিডনিতে তৃতীয় টেস্টে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য শুনতে হওয়ায়, দলীয় ম্যানেজমেন্ট মাঠ ছাড়তে বলেছিল। কিন্তু মাঠ ছাড়েনি ভারত। শেষ পর্যন্ত তারা চার ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নেয়। বাবার মৃত্যুশোক বুকে নিয়েই ব্রিসবেনে ৫ উইকেট শিকার করেন সিরাজ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের মতে, সিরাজ ও তারই সতীর্থ আরেক পেসার জসপ্রিত বুমরাহকে সীমানার কাছাকাছি ফিল্ডিং করার সময় গ্যালারি থেকে 'বানর' এবং অন্যান্য অপমানজনক মন্তব্য শুনতে হয়েছে। সিরাজ বলেন, 'অস্ট্রেলিয়ার দর্শকদের গালমন্দ বা বর্ণবাদী মন্তব্যই আমাকে মানসিকভাবে শক্তিশালী করে তোলে। আমার খেলার উপর এসবের প্রভাব পড়তে দেইনি এবং এটিই গুরুত্বপূর্ণ ছিল।আমি আমার অধিনায়ক আজ্জু ভাইকে (আজিঙ্কা রাহানে) এ বিষয়ে জানিয়েছিলাম এবং তিনি আম্পায়ারের সাথে কথা বলেন। আম্পায়ার বলে- আপনারা মাঠ ছাড়তে পারেন। কিন্তু রাহানে বলেন- আমরা খেলব।'

এরপর ছয়জন দর্শককে বের করে দেয়া হয়েছিল এবং এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়। ইনজুরি বিধ্বস্ত দল হবার পরও, সিডনি টেস্টে ড্র করে ভারত। এমনকি ব্রিসেবেনে ৩২ বছর অস্ট্রেলিয়ার অপরাজিত থাকার রেকর্ড ভঙ্গ করে দুর্দান্ত একটি সিরিজ জয়ের স্বাদ নেয় ভারত। সিরিজের ঠিক আগে মারা যান সিরাজের বাবা। এমন শোক নিয়ে দলের সাথেই অস্ট্রেলিয়া সফরে থেকে গেছেন তিনি। ব্রিসবেনে নিজের তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মত পাঁচ উইকেট নেয়া সিরিজে ১৩ উইকেট শিকার করেন।

বৃহস্পতিবার দেশে ফেরার পর নিজ শহর হায়দারাবাদে বীরোচিত সংবর্ধনা পান সিরাজ। এরপর তিনি সরাসরি বাবার কবর জিয়ারত করতে যান।  সিরাজের বাবা ছিলেন অটোচালক। অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারত কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় মারা যান তিনি। তারপরও দলের সাথে থাকার সিদ্বান্ত নেন সিরাজ। তিনি বলেন, 'প্রথমত এটি আমার জন্য খুবই কঠিন ছিল। মানসিকভাবে আমি হতাশ ও বিষন্ন ছিলাম। বাড়িতে তাদের সাথে আমার কথা হয়েছিল এবং তারা বলেছিল, বাবার স্বপ্ন আমরা পূরণ করা উচিত।'

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলির অধীনে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করে জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পান সিরাজ। তিনি বলেন, '২০১৮ সালে আমার খারাপ মৌসুম ছিল, তারপরও আরসিবি আমার পাশে ছিল। বিরাট ভাই, সব সময় আমার পাশে ছিলেন এবং বলেছিলেন- তোমার ক্ষমতা আছে, তুমি এটি করতে পারবে। আমি এই পারফরমেন্সটি মাথায় নিয়ে বসে থাকতে চাই না। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও আসন্ন ইংল্যান্ড সিরিসে আমি আরো ভাল করতে চাই।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা